৩০ বছর পরেও ‘অটুট’ সানি-ডিম্পলের প্রেম

৩০ বছর পরেও ‘অটুট’ সানি-ডিম্পলের প্রেম

বিনোদন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৪৪ ২৬ অক্টোবর ২০২০  

সানি দেওল এবং ডিম্পল কাপাডিয়া

সানি দেওল এবং ডিম্পল কাপাডিয়া

বলিউডে যে কয়েকটি প্রেমের গল্পের সিনেমা তুফান তুলেছিল, তার মধ্যে সানি দেওল এবং ডিম্পল কাপাডিয়া অভিনীত ‘আফসানা’ বোধহয় একেবারে প্রথম সারিতে থাকবে। এরপর পর্দার সেই প্রেম তাদের বাস্তব জীবনেও চলেছিল দীর্ঘ ১১ বছর ধরে। অনেকের মতে, তাতে কখনোই ভাটা পড়েনি। কেমন করে শুরু হয়েছিল সানি-ডিম্পলের ‘আফসানা প্যায়ার কা? ৩০ বছর কেটে গেলেও কি তাতে ভাটা পড়েনি?

ডিম্পলের সঙ্গে ‘আফসানা’ শুরুর আগে অবশ্য সানির জীবনে ছিলেন অভিনেতা সাইফ আলি খানের সাবেক স্ত্রী অমৃতা সিং। ১৯৮৩ সালে রাহুল রাওয়াল পরিচালিত সিনেমা ‘বেতাব’-এ দুজনই প্রথমবার বড় পর্দায় একসঙ্গে এসেছিলেন। আনকোরা নায়ক-নায়িকা হলেও বক্স অফিসে তুমুল সফল হয়েছিল সে সিনেমা। সেই সঙ্গে সুপারডুপার হিট ‘বেতাব’-এর গান।

‘বেতাব’ মুক্তির পর থেকেই সানি-অমৃতার অনস্ক্রিন জুটির রসায়ন উঠে এসেছিল সিনেপ্রেমীদের চর্চায়। তবে পর্দার বাইরেও যে তাদের জুটি জমাট বেঁধেছে, সে খবর চাউর হতেও বেশি সময় লাগেনি। সে সময় আরো একটা খবর আগুনের মতো ছড়িয়েছিল। ‘বেতাব’ এর ইনোসেন্ট নায়ক সানি দেওল নাকি বিবাহিত!

সানি দেওল এবং ডিম্পল কাপাডিয়া

সানি যে বিবাহিত, এ খবর জানায়নি কেন তার পরিবার? বলিউডের জল্পনা বলে, বিবাহিত হিরো হলে সানির ইমেজে ধাক্কা লাগতে পারে ভেবেই নাকি সে খবর জানায়নি দেওল পরিবার। লন্ডননিবাসী পূজার সঙ্গে সানির বিয়ের খবর চাউর হতে না হতেই সম্পর্কে দাঁড়ি টেনেছিলেন অমৃতা সিং।

আরো একটা ঘটনায় সানি-অমৃতার সম্পর্কে ভাঙন ধরে। ১৯৮২ সালে ডিম্পলের সঙ্গে প্রথম দেখা সানির। তাদের দু’জনকে প্রথম ‘মঞ্জিল মঞ্জিল’ সিনেমায় দেখা গিয়েছিল। এরপর ১৯৮৪ সালে আবার একসঙ্গে ‘অর্জুন’ সিনেমায় অভিনয় করেন তারা। জল্পনা ছিল, সানিই নাকি পরিচালক রাহুল রাওয়ালকে ওই ছবির নায়িকা হিসাবে ডিম্পলের নাম সুপারিশ করেন।
 
এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই অমৃতার সঙ্গে সম্পর্ক পুরোপুরি ভেঙে যায়। এরপর সানির জীবনে পাকাপাকিভাবে প্রবেশ করেন অভিনেত্রী টুইঙ্কেল খান্নার মা এবং অক্ষয় কুমারের শাশুড়ি ডিম্পল কাপাডিয়া। ডিম্পলের সঙ্গে সানির মাখোমাখো প্রেম শুরুর সময় দুজনেরই জীবনে একটি বিষয়ে মিল ছিল। দুজনেই বিবাহিত ছিলেন। তবে সে সবের বিশেষ তোয়াক্কা করেননি সানি-ডিম্পল।

একবার তো ডিম্পল বলেইছিলেন, বিয়ে হয়েছে তো কী? আমিও তো বিবাহিত। দুই মেয়ের মা। হ্যাঁ! রাজেশ খান্নার সঙ্গে আলাদা থাকলেও ডিম্পলের তখন কাগজেকলমে বিবাহবিচ্ছেদ হয়নি। অন্যদিকে, পূজার সঙ্গে ছিলেন সানিও। বিবাহিত হলেও সানি-ডিম্পলের প্রেমে বাঁধ মানেনি। সে সময় বলি‌উডে গুঞ্জন ছিল, অমৃতাও নাকি সে প্রেমে সিলমোহর দিয়েছিলেন। একটা সময়ে একের পর এক সিনেমায় দেখা যায় সানি-ডিম্পলকে। হিটও হয়েছিল সেসব সিনেমা।

সানি দেওল এবং ডিম্পল কাপাডিয়া

সানি-ডিম্পলের অফ-স্ক্রিন জুটি তখন ফিল্মি ম্যাগাজিনে প্রায়ই শিরোনামে। দুজনের ঘনিষ্ঠ ছবিও গসিপ ম্যাগাজিনের পাতা ভরাচ্ছিল। এক সময় তো সানিকেই ‘ছোটে পাপা’ বলতে শুরু করেছেন ডিম্পলের দুই মেয়ে টুইঙ্কেল এবং রিঙ্কি। সানি-ডিম্পলের সম্পর্ক নিয়ে যতই গসিপ ম্যাগাজিন ভরে যাক না কেন, তাতে সে সময় দুজনের প্রেমে ভাটা পড়েনি। ২০০৯ সালে বোন সিম্পল কাপাডিয়ার মৃত্যু হলে সানিকেই পাশে পেয়েছিলেন ডিম্পল।

বলিউডে তো এক সময় জোর জল্পনা ছিল, গোপনে বিয়ে করে ফেলেছেন সানি-ডিম্পল। গসিপ ম্যাগাজিমগুলো বলতে শুরু করেছিল, সিনেমার পার্টিতে বা সামাজিক অনুষ্ঠানেও ডিম্পলকে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়েছেন সানি। একটা সময় ডিম্পলের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে দিতে নাকি সানিকে চাপ দিতে শুরু করেন তার স্ত্রী পূজা। এমনকি ছেলেদের নিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ারও হুমকি দিয়েছিলেন তিনি।

স্ত্রীর হুমকির পর নাকি পূজার সঙ্গে থাকার সিদ্ধান্তে আরো অটল হন সানি। তবে ডিম্পলের সঙ্গে সম্পর্ক সে সময় ভাঙেননি সানি। গত বছর ডিম্পলের ভাইপো করণ কাপাডিয়াকে বলিউডে প্রবেশের সুযোগ করে দেন সানিই। যদিও বেহজাড খাম্বাটার সিনেমা ‘ব্ল্যাঙ্ক’-এ মুখ দেখালেও সুবিধা করতে পারেননি করণ। তবে ডিম্পলের প্রতি সানির টান যে কমেনি, সে জল্পনায় আরো হাওয়া লাগে ওই ঘটনায়।

১১ বছর জোরদার প্রেমের পর এক সময়ে সানি-ডিম্পলের সম্পর্কে ছেদ পড়ে। তবে তাতেও প্রশ্নচিহ্ন তুলছেন অনেকে। সত্যিই কি তাদের প্রেম ভেঙেছিল? ২০১৭ সালে লন্ডনের রাস্তায় হাতে হাত রেখে ঘুরতে দেখা গিয়েছিল সানি-ডিম্পলকে। ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিও দেখে অনেকেই মন্তব্য করেছিলেন, ৩০ বছর কেটে গেলেও সানি-ডিম্পলের প্রেমের নৌকা নাকি এখনো নতুন দিগন্ত খুঁজে চলেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস