গৌরি, সুজান থেকে প্রীতি! মাদকাসক্ত হওয়ায় রিহ্যাবে যেতে হয়েছিল যাদের

গৌরি, সুজান থেকে প্রীতি! মাদকাসক্ত হওয়ায় রিহ্যাবে যেতে হয়েছিল যাদের

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪৯ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:১৮ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

গৌরি, সুজান ও প্রীতি

গৌরি, সুজান ও প্রীতি

বলিউড মানেই গ্ল্যামার এবং ঝাঁ-চকচকে আলোয় ভরা একটা জগৎ। বড়পর্দা বা ছোটপর্দায় তারকাদের দেখে দর্শকরা একপ্রকার মোহিত হয়ে যান। তাদের জীবনযাপন দেখে অনেকেই অনুপ্রাণিত হন। নিজের প্রিয় তারকাকে দেখে মনে মনে অনেকে ভাবেন, আমার জীবন যদি এমন হতো।

তারকাদের পোশাক-আশাক, ইনস্টাগ্রাম ফলোয়ার সমস্ত দেখেই মনে হয় কোনো এক অধরা জগতের বাসিন্দা তারা। কিন্তু সত্যিই কি বিনোদন জগত শুধুই আলোয় ভরা। নাকি চোখের সামনে যে আলো দেখা যায় তার পিছনে রয়েছে বিরাট অন্ধকার?

ছবির পর্দায় সমস্তটা ঝাঁ চকচকে মনে হলেও, আসলে একটা গভীর অন্ধকার জগত রয়েছে এই তারকাদের জীবনে। সুশান্ত সিং রাজপুতের ঘটনায় সেরকমই বেশকিছু অন্ধকার দিক মানুষের চোখের সামনে উঠে এসেছে।

বলিউডের সঙ্গে মাদক যোগ রয়েছে। এর আগেও বহু তারকার নাম মাদক যোগের সঙ্গে জড়িয়েছে। তবে জানেন কি বলিউডে এমন কয়েকজন তারকা রয়েছে যাদের সুস্থ হওয়ার জন্য রিহ্যাবে যেতে হয়েছে। দেখে নেয়া যাক এদের মধ্যে কারা কারা রয়েছেন-

মনীষা কৈরালা

মনীষা কৈরালা
সেই সময় মনীষার ক্যারিয়ারের মধ্যগগণে। কিন্তু তখনই মদ্যপানের নেশার পাল্লায় পড়েন অভিনেত্রী। ততদিনে ‘আকেলে হাম আকেলে তুম’, ‘মন’ ইত্যাদি ছবিতে অভিনয় করে বেশ জনপ্রিয় মনীষা। কিন্তু নেশার জগতে তলিয়ে যেতে বসে তার ক্যারিয়ারও। শুধু কাজ নয়। স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলেছিল এই নেশা। এক সময় নেশা থেকে মুক্তি পেতে রিহ্যাব সেন্টারে গিয়েছিলেন তিনি। পরে ক্যান্সারেও আক্রান্ত হন অভিনেত্রী।

রাবিনা ট্যান্ডন

রাবিনা ট্যান্ডন
রবিনা ট্যান্ডনের এবং গ্ল্যামারের মুগ্ধ ছিলেন দর্শকরা। একসময় তাকেও রিহ্যাব যেতে হয়েছিল। তবে নেশার জন্য নয়। সহ অভিনেতা অক্ষয় কুমারের সঙ্গে তার সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর প্রচন্ড ভেঙে পড়েছিলেন অভিনেত্রী। তিনি সেই সম্পর্কে খুব জড়িয়ে পড়েছিলেন। তাই অক্ষয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদ মেনে নিতে পারেননি এবং অবসাদে ও একাকিত্বে ভুগতে থাকেন। তখন তাকে চিকিৎসা করাতে হয়। তবে তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন।

কপিল শর্মা

কপিল শর্মা
জনসমক্ষে মানুষকে হাসাতে তার জুড়ি মেলা ভার। তিনি এই মুহূর্তে একজন খ্যাতনামা অভিনেতাও। কিন্তু এক সময় মদ্যপানের নেশায় ডুবে গিয়েছিলেন কপিল। তাই সেই সময় রিহ্যাবে যেতে হয় তাকে।

প্রতীক বব্বর

প্রতীক বব্বর
হাতে গোনা কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করলেও, তার অভিনয় পছন্দ করেছিলেন দর্শকরা। কিন্তু নেশার জগতে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। মদ্যপানের সঙ্গে ড্রাগের নেশাও নাকি ছিল তার। এই নেশা কাটানোর জন্য রিহ্যাব সেন্টার গিয়েছেন প্রতীক।

দিব্যা ভারতী

দিব্যা ভারতী
৯০ এর দশকের এই অভিনেত্রীর সৌন্দর্য্যে মুগ্ধ ছিল দর্শক। খুব অল্প বয়সেই মদের নেশায় ডুবে যান তিনি। দিওয়ানা, দিল কা কেয়া কসুর ছবিতে অভিনয় করে নজর কেড়েছিলেন। কিন্তু মদের নেশায় জড়িয়ে পড়ায় কেরিয়ারেও পিছিয়ে পড়েন তিনি। বছর কয়েক পরে তার মৃত্যু হয়। বহুতল থেকে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হয়েছিল। কিন্তু সেই মৃত্যুর পিছনের ঘটনা এখনো রহস্যই রয়ে গিয়েছে।

গৌরী খান

গৌরী খান
তিনি বলিউডের কিং খান শাহরুখ এর স্ত্রী। বলিউডে নিজেও তার শক্ত জমি রয়েছে। কিন্তু একসময় বার্লিন বিমানবন্দরে তার থেকে গাঁজা পাওয়া গিয়েছিল।

প্রীতি জিনতা

প্রীতি জিন্তা
বলিউডের ডিম্পল কুইন হিসেবে বিখ্যাত তিনি। একসময় চলচ্চিত্র জগতের দাঁপিয়ে বেড়িয়েছেন প্রীতি। তার ভক্তের সংখ্যাও কম নয়। কিন্তু শোনা যায় তিনি নাকি এক সময় কোকেন-এ আসক্ত ছিলেন।

সুজান খান

সুজান খান
ড্রাগের নেশায় নাকি একসময় তলিয়ে দিয়েছিলেন সুজান। শোনা যায় তিনি কোকেন জাতীয় মাদকে আসক্ত ছিলেন। হৃতিক রোশনের সঙ্গে বিচ্ছেদেরও অন্যতম কারণ নাকি তার মাদক আসক্ত জীবন।

হানি সিং

হানি সিং

নানা রকমের মাদক ও মদের নেশায় তলিয়ে গিয়েছিলেন হানি সিং। বলিউডে ক্যারিয়ার গড়তে থাকলেও নেশার জগতে ঢুকে পড়ে পিছিয়ে যান তিনি। অনেকটা সময় ধরে রিহ্যাব সেন্টারে ছিলেন হানি সিং। তবে জানা যায় এখন তিনি এই নেশা কাটিয়ে উঠেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ