সৃজিতের সিরিজে জয়া-পরীমনির সম্পৃক্ততা নিয়ে ধোঁয়াশা

সৃজিতের সিরিজে জয়া-পরীমনির সম্পৃক্ততা নিয়ে ধোঁয়াশা

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:২৬ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:৪৯ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

পরীমনি, সৃজিত ও জয়া আহসান। ছবি: সংগৃহীত

পরীমনি, সৃজিত ও জয়া আহসান। ছবি: সংগৃহীত

এক রহস্যময়ী নারীর প্রহেলিকাময় জগতের গল্প নিয়ে লেখা উপন্যাস ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’ নিয়ে কলকাতায় ওয়েব সিরিজ নির্মিত হচ্ছে। উপন্যাসের লেখক বাংলাদেশি হলেও, এ সিরিজে বাংলাদেশের কেউ অভিনয় করবেন না বলে জানা গেছে। একইসঙ্গে জয়া আহসান ও পরীমনির সম্পৃক্ততার খবরও মিথ্যা প্রমাণিত হচ্ছে।

স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হইচই’র চার বছর পূর্তিতে একগুচ্ছ নতুন শো-এর ঘোষণা আসে শুক্রবার। এর মধ্যে অন্যতম ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’। প্রকাশ হয়েছে পোস্টারও।

বাংলাদেশি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের এ উপন্যাস নিয়ে সিরিজটি নির্মাণ করছেন কলকাতার পরিচালক সৃজিত মুখার্জি। অনেক দিন ধরে এ খবর আলোচনায় আছে। এবার এলো পোস্টারসহ চূড়ান্ত ঘোষণা। তবে এমন ঘোষণায় ঢাকার দর্শকরা বেশ হতাশ হয়েছেন। কারণ প্রিয় উপন্যাসের চরিত্রে ঢাকার কোনো তারকা থাকছেন না— এমনই ইঙ্গিত দিলেন সৃজিত।

‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’ ওয়েব সিরিজের পোস্টার

ওয়েব সিরিজটির পোস্টার শেয়ার করে সোশ্যাল মিডিয়া সৃজিত বলেন, এটা হইচই’র সঙ্গে আর প্রথম কাজ। চেয়েছিলাম বাংলাদেশের অভিনয়শিল্পীদের নিয়ে সেখানেই শুট করবো। দুর্ভাগ্যজনকভাবে করোনা পরিস্থিতিতে তা সম্ভব নয়। তবে তিনি কথা দেন, মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের মনকাড়া এই উপন্যাসের স্বাদ অক্ষুণ্ন রেখেই সিরিজটি নির্মাণ করবেন তিনি।

এর আগে ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’র মুসকান জুবেরি চরিত্রে জয়া আহসান ও পরীমনির নাম শোনা যায়। তবে কোনো পক্ষই এই গুঞ্জনের সত্যতা স্বীকার করেননি তখন। এছাড়া চঞ্চল চৌধুরী ও মোশাররফ করিমের সংযুক্তির কথা শোনা যায়। এর মধ্যে ‘মনপুরা’ নায়ক চূড়ান্ত আলোচনার কথা স্বীকার করেছিলেন। এখন দেখার বিষয় শেষ পর্যন্ত কারা করছেন এ সিরিজ।

‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’ উপন্যাসে লেখক ছবির মতো সুন্দর এক মফস্বল শহর সুন্দরপুরের কথা তুলে ধরেছেন। যেখানে রয়েছে অনেক রহস্য। সেসব রহস্য সম্পর্কে সুন্দরপুরের মানুষজন জানে খুব কমই। এ গ্রামেরই একটি রেস্তোরাঁর নাম ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’। রবীন্দ্রনাথ কি সত্যিই কখনো এখানে খেতে আসেননি, নাকি এসেছিলেন? আর কেনই বা রেস্তোরাঁর নাম রাখা হলো রবীন্দ্রনাথের নামে? সেসবই রয়েছে এই উপন্যাসে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে