চবির প্রধান ফটকে তালা দিলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা

চবির প্রধান ফটকে তালা দিলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা

চবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:২৯ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২  

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) প্রধান ফটকে তালা দিলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার গ্রহণের কথা জানিয়েছে প্রশাসন। 

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান সাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে, বিভিন্ন ইস্যুকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীরা যখন-তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক ও পরিবহন দফতরসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অফিস বন্ধ করে দিচ্ছে। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ, ইন্সটিটিউট নির্ধারিত ক্লাস-পরীক্ষা ও সেমিনার আয়োজনে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়াও একাডেমিক ও দাফতরিক কাজে ক্যাম্পাসে আগত শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সেবাপ্রার্থীদের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়, কর্মঘণ্টা নষ্ট হয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়কে সেশনজটমুক্ত করার লক্ষ্যে গৃহীত পদক্ষেপ বাঁধাগ্রস্ত হয়। 

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থী কিংবা বহিরাগত কেউ যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম বিঘ্নিত করে তাহলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাবিরোধী কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

উল্লেখ্য, গত ১৯ সেপ্টেম্বর শাখা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি বর্ধিতকরণ, যোগ্যদের মূল্যায়ন, বিবাহিত এবং নিষ্ক্রিয়দের বাদ দেওয়ার দাবিতে প্রধান ফটকে তালা দেয় একাংশের নেতাকর্মীরা। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান প্রায় ১৪টি বিভাগের পরীক্ষা স্থগিত হয়। এছাড়াও বন্ধ থাকে সব ক্লাস ও প্রশাসনিক কার্যক্রম। 

এর আগেও প্রধান ফটকে তালা লাগানোর একাধিকবার ঘটনা ঘটেছে। ট্রেনের শিডিউল বাড়ানো, শিক্ষার্থীকে সিএনজি চালকের মারধর, পূর্ণাঙ্গ কমিটি কিংবা নানা অভ্যন্তরীণ কোন্দলেও তালা লাগে প্রধান ফটকে। সঙ্গে রয়েছে শাটল ট্রেন বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনাও। এতে ক্ষতি হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। ব্যাহত হচ্ছে প্রশাসনিক কার্যক্রমও।

ডেইলি বাংলাদেশ/কেবি