পদার্থবিজ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ সূত্র

পদার্থবিজ্ঞানের কিছু গুরুত্বপূর্ণ সূত্র

শিক্ষাঙ্গন ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:৫৭ ১৮ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ১০:৩৩ ১৯ জানুয়ারি ২০২২

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

পদার্থবিজ্ঞান সৃজনশীল প্রশ্নে প্রায় ৭০-৮০ শতাংশ নম্বর থাকে গাণিতিক সমস্যার ওপর ভিত্তি করে। এ কারণে প্রতিটি অধ্যায়ের সূত্রাবলি সঠিকভাবে জানা এবং তা প্রয়োগ করার দক্ষতা অর্জন করতে হবে। আলোর প্রতিফলন ও আলোর প্রতিসরণ অধ্যায় দুটির রশ্মিচিত্র অঙ্কন করার সময় অবশ্যই দিকনির্দেশের জন্য তীর চিহ্ন ব্যবহার করতে হবে।

বহু নির্বাচনী প্রশ্ন-২৫, ২৫টি প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি অংশের মান ১।

সৃজনশীল প্রশ্ন-৫০। ৮টি প্রশ্ন থাকবে। ৫টির উত্তর দিতে হবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১০। প্রতিটি সৃজনশীল প্রশ্নে ৪টি অংশ থাকবে। জ্ঞানমূলক-১, অনুধাবনমূলক-২, প্রয়োগমূলক-৩, উচ্চতর দক্ষতামূলক-৪।

বহু নির্বাচনী অংশ: এ বিষয়ে অধ্যায় সংখ্যা ১৪টি। এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে ২৫টি বহু নির্বাচনী প্রশ্ন থাকবে। সর্বশেষ নির্দেশনা অনুসারে, এসএসসি পরীক্ষায় প্রতি অধ্যায় থেকে ১-৩টি বহু নির্বাচনী প্রশ্ন থাকবে।
অধ্যায়ভিত্তিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো

প্রথম অধ্যায়: এসআই-এর মৌলিক একক, মাত্রা, স্লাইড ক্যালিপার্স, স্ক্রু গেজ।

দ্বিতীয় অধ্যায়: পর্যায়বৃত্ত গতি, স্কেলার রাশি ও ভেক্টর রাশি, বেগ-সময় লেখচিত্র।

তৃতীয় অধ্যায়: বল ও ত্বরণের সম্পর্ক, ক্রিয়া ও প্রতিক্রিয়া বল, ভরবেগের সংরক্ষণ সূত্র, ঘর্ষণ ও ঘর্ষণ বল।

চতুর্থ অধ্যায়: গতিশক্তি, বিভব শক্তি, শক্তির সংরক্ষণশীলতা নীতি, ক্ষমতা, কর্মদক্ষতা।

পঞ্চম অধ্যায়: প্লবতা, প্যাসকেলের সূত্র, আর্কিমিডিসের সূত্র, বস্তুর ভাসন ও নিমজ্জন।

ষষ্ঠ অধ্যায়: সেলসিয়াস, ফারেনহাইট ও কেলভিন স্কেলের মধ্যে সম্পর্ক। পদার্থের তাপীয় প্রসারণ, তাপধারণ ক্ষমতা ও আপেক্ষিক তাপ, তাপ পরিমাপের মূলনীতি, সুপ্ততাপ।

সপ্তম অধ্যায়: তরঙ্গসংশ্লিষ্ট রাশি, তরঙ্গবেগ ও তরঙ্গদৈর্ঘ্যের মধ্যে সম্পর্ক, প্রতিধ্বনি, প্রতিধ্বনির ব্যবহার, শ্রাব্যতার সীমা।

অষ্টম অধ্যায়: সমতল দর্পণে সৃষ্ট প্রতিবিম্ব, গোলীয় দর্পণের প্রতিবিম্ব, দর্পণের ব্যবহার, বিবর্ধন।

নবম অধ্যায়: আলোর প্রতিসরণের সূত্র, প্রতিসরণাঙ্ক, ক্রান্তি কোণ ও পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন, উত্তল লেন্সে প্রতিবিম্ব গঠন, অবতল লেন্সে প্রতিবিম্ব গঠন, লেন্সের ক্ষমতা, চোখের ত্রুটি ও প্রতিকার।

দশম অধ্যায়: তড়িৎ আবেশ, কুলম্বের সূত্র, তড়িৎ ক্ষেত্র, তড়িৎ বিভব।

একাদশ অধ্যায়: তড়িচ্চালক শক্তি ও বিভব পার্থক্য, ওহমের সূত্র, রোধের নির্ভরশীলতা, আপেক্ষিক রোধ, তুল্যরোধ ও বর্তনীতে তুল্যরোধ নির্ণয়, তড়িৎ ক্ষমতা।

দ্বাদশ অধ্যায়: তাড়িত চুম্বক ,তাড়িত চৌম্বক আবেশ, ট্রান্সফর্মার।

ত্রয়োদশ অধ্যায়: তেজস্ক্রিয়তা, আলফা কণা, বিটা কণা ও গামা রশ্মির বৈশিষ্ট্য, তেজস্ক্রিয়তার ব্যবহার ও বিপদ।

চতুর্দশ অধ্যায়: এক্সরে ,আলট্রাসনোগ্রাফি, এমআরআই, আইসোটোপ এবং এর ব্যবহার।

পদার্থবিজ্ঞান বিষয়ে এসএসসি পরীক্ষায় সৃজনশীল অংশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় : ২, ৪, ৫, ৬, ৭, ৯, ১০, ১১।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম