কাশিমপুর থেকে ‘মই বেয়ে পালিয়ে যাওয়া’ সেই কয়েদি শরীয়তপুরে গ্রেফতার

কাশিমপুর থেকে ‘মই বেয়ে পালিয়ে যাওয়া’ সেই কয়েদি শরীয়তপুরে গ্রেফতার

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৪১ ২৩ জুন ২০২২   আপডেট: ১৬:৪১ ২৩ জুন ২০২২

গ্রেফতার কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিক

গ্রেফতার কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিক

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে মই বেয়ে পালিয়ে যাওয়া হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২২ জুন) দুপুর ১২টায় শরীয়তপুর পদ্মাসেতু দক্ষিণ থানাধীন নাওডোবা মিনাকান্দি চৌরাস্তা এলাকায় সন্দেহভাজন অবস্থায় ঘোরাঘুরি করতে দেখে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে সে কারাগার থেকে পালিয়ে আসার বিষয়টি জানায়।

শরীয়তপুর পদ্মা সেতুর দক্ষিণ থানার ওসি শেখ মো. মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতার কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিক (৩৭) সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর থানার চন্ডিপুর এলাকার মৃত কেছের আলীর ছেলে। একটি হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর বন্দি থাকাবস্থায় ২০২০ সালের ৬ আগস্ট মই বেয়ে কারাগার থেকে পালিয়েছিলেন। 

ওসি শেখ মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে শরীয়তপুরের পদ্মাসেতু দক্ষিণ থানাধীন নাওডোবা এলাকায় ঘোরাফেরা করছিল আবু বক্কর সিদ্দিক। তার চলাফেরা সন্দেহজনক হলে তাকে আটক করে থানায় আনা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে সে কাশিমপুর কারাগার থেকে পালিয়ে আসার বিষয়টি জানায়। পরে তাকে আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাকে শরীয়তপুর কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। শরীয়তপুর জেলা কারাগারের জেলার মো. দিদারুল আলম (তৎকালীন কাশিমপুর কারাগারের জেলার) গ্রেফতার কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিককে দেখেই চিনে ফেলেন।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ একটি সূত্র জানায়, ২০২০ সালের মই বেয়ে কয়েদি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় একজন জেলারসহ দুইজন কারারক্ষীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম