স্ত্রীকে খোলা তালাক, সত্যতা জানতে এসে হলেন লাশ

স্ত্রীকে খোলা তালাক, সত্যতা জানতে এসে হলেন লাশ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৫৪ ১৩ অক্টোবর ২০২১  

বাড়ির পাশের ডোবা থেকে নিখোঁজ গৃহবধূর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ

বাড়ির পাশের ডোবা থেকে নিখোঁজ গৃহবধূর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ

ঝালকাঠিতে পারিবারিক বিরোধের জেরে পারভিন আক্তার নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। বুধবার সকালে সদর উপজেলার বেরমহল গ্রামের একটি ডোবা থেকে তার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

স্থানীয়রা জানায়, বেরমহল গ্রামের আবু হানিফের ছেলে তানজিল হাওলাদারের সঙ্গে বিয়ে হয় চাঁদপুর সদরের কল্যাণদী এলাকার জিন্নাত আলী মোল্লার মেয়ে পারভিন আক্তারের। তাদের ১৮ মাস বয়সী একটি কন্যাসন্তান আছে। এক বছর ধরে স্বামী ও শাশুড়ির সঙ্গে বিরোধ চলছিল ঐ গৃহবধূর। এ অবস্থায় একমাস আগে তিনি সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যান।

আরো জানা গেছে, কিছুদিন আগে পারভিন জানতে পারেন স্বামী তাকে খোলা তালাক দিয়েছেন। এর সত্যতা যাচাই করতে মঙ্গলবার সকালে তিনি স্বামীর বাড়ির পাশের একটি ঘরে ওঠেন। রাত ১১টার দিকে তার মোবাইলে কল এলে তিনি বাইরে বের হন। এরপর থেকেই তিনি নিখোঁজ ছিলেন। সকালে বাড়ির পাশের একটি ডোবা থেকে তার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পারিবারিক বিরোধের জেরে রাতে স্বামী তানজিল তাকে ডেকে নিয়ে হত্যার পর লাশ ডেবায় ফেলে রাখেন ধারণা পুলিশের।

ঝালকাঠি থানার ওসি খলিলুর রহমান জানান, নিহত গৃহবধূর শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে পিটিয়ে ও গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী তানজিল হাওলাদার পলাতক। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর