ইচ্ছার বিরুদ্ধে তালাক নিয়ে বাবার বাড়িতে ফাঁস দিলেন গৃহবধূ

ইচ্ছার বিরুদ্ধে তালাক নিয়ে বাবার বাড়িতে ফাঁস দিলেন গৃহবধূ

ময়মনসিংহ ও নান্দাইল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৩৬ ৪ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ২০:৪৯ ৪ অক্টোবর ২০২১

ঈশ্বরগঞ্জ থানা, ময়মনসিংহ

ঈশ্বরগঞ্জ থানা, ময়মনসিংহ

স্বামীর বাড়ি থাকলেও বনিবনা হচ্ছিল না। এক বছরের সংসার জীবনের অবসান হয় তালাকের মাধ্যমে। ঘটনার তিনদিন পর বাবার বাড়িতে ফাঁস দিতে আত্মহত্যা করেছেন এক গৃহবধূ।

সোমবার দুপুরে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের নয়াচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধূ ঐ গ্রামের জয়নালের মেয়ে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, এক বছর আগে ত্রিশাল উপজেলার কাঁঠাল ইউনিয়নের কালিরহাট গ্রামের মো. সাব্বিরের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক ছাড়াও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ চলছিল। এসবের মধ্যে কয়েকবার স্বামীর নির্যাতনের শিকার হয়ে তিনি বাবার বাড়ি চলে যান। পারিবারিকভাবে মীমাংসা হলেও দাম্পত্য জীবনে শান্তি ছিল না তাদের।

নিহতের বাবা জয়নাল মিয়া জানান, মেয়ের সুখের কথা ভেবে ধারদেনা করে কয়েকবার অর্ধলক্ষাধিক টাকা দেওয়া হয় সাব্বিরকে। কিছুদিন পর পর সে টাকার জন্য চাপ দেয়। এমনকি টাকা না পেলে তার মেয়েকে তালাক দেওয়ার হুমকিও দেয় সাব্বির। গত শুক্রবার এ নিয়ে সাব্বিরের বাড়ির কাছে কালিরবাজারে দুই পক্ষের উপস্থিতিতে সালিশ বসে। এতে সিদ্ধান্ত হয় খোলা তালাকের মাধ্যমে তাদের বিচ্ছেদ করা হবে।

তিনি আরো জানান, তার মেয়ের তালাক নেয়ার ইচ্ছা ছিল না। তালাকের পর সে সালিশের স্থানেই অচেতন হয়ে পড়ে। এরপর প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে নিলেও সে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। সোমবার দুপুরে নিজ ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল কাদের মিয়া জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। অন্যথায় বিনা ময়নাতদন্তে লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর