বিস্ফোরণের স্থানে মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দল, গ্যাসের নমুনা সংগ্রহ

বিস্ফোরণের স্থানে মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দল, গ্যাসের নমুনা সংগ্রহ

বরগুনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪৯ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৭:৫০ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

বরগুনার পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের রুহিতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নলকূপ বসানোর সময়  গ্যাস ওঠার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দল

বরগুনার পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের রুহিতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নলকূপ বসানোর সময় গ্যাস ওঠার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দল

বরগুনার পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের রুহিতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সুপেয় পানির জন্য নলকূপ বসানোর সময় মাটির নিচ থেকে গ্যাস ওঠার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দল।

মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিন পরিদর্শন করে সেই স্থানে আগুন জ্বালিয়ে গ্যাসের উদ্‌গীরণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব শাহ্ মো. কামরুল হুদার নেতৃত্বে বাপেক্সের ডেপুটি ম্যানেজার জিওলোজিস্ট সালেহ আহমদ ও হামিদুজ্জামান ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছেন। এ সময় পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, উপজেলা সমবয় কর্মকর্তা জাফর সাদিক, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় কর্মকর্তা তারিকুল ইসলাম, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা টি আই শাহ্ আলম, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হায়দার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উপ-সচিব শাহ্ মো. কামরুল হুদা বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নমুনা সংগ্রহ করেছি। ল্যাবে পরীক্ষা-নিরিক্ষা শেষে বলা যাবে এখান থেকে কি ধরনের গ্যাসের উঠছে।

এর আগে, কয়েকদিন ধরে ইনস্টিটিউট অব ওয়াটার মডেলিং নামে একটি প্রতিষ্ঠান মাটির এক হাজার ফুট নিচে পাইপ প্রবেশ করিয়ে সুপেয় পানির অনুসন্ধান চালায়। এর নেতৃত্ব দেয় পানিসম্পদ অধিদফতরের অনুসন্ধান দল। হঠাৎ গত শুক্রবার মাটির নিচে বিস্ফোরণ হয়ে গ্যাস ঊঠতে শুরু করে। এরপরই জ্বালানি ও খনিজ মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করেন বরগুনা-২ আসনের এমপি শওকত হাসানুর রহমান রিমন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর