ইন্টারভিউ দিতে ঢাকা এসেছিলেন, ফিরলেন লাশ হয়ে

ইন্টারভিউ দিতে ঢাকা এসেছিলেন, ফিরলেন লাশ হয়ে

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:১২ ৩ মে ২০২১  

নিহত শাহাদাত হোসেন মোল্লা (বামে), কাঁদছেন ভাই শহিদুল মোল্লা

নিহত শাহাদাত হোসেন মোল্লা (বামে), কাঁদছেন ভাই শহিদুল মোল্লা

মাদারীপুরের শিবচরের নিয়ামতকান্দী গ্রামের শাহাদাত হোসেন মোল্লা। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স পাস করে চাকরির চেষ্টা করছিলেন। করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই চাকরির ইন্টারভিউ দিতেই গ্রামের বাড়ি থেকে ঢাকায় আসেন তিনি। কিন্তু জীবিত ফিরতে পারেননি।

মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি এলাকায় থেমে থাকা বাল্কহেডের সঙ্গে যাত্রীবাহী স্পিডবোটের ধাকায় যে ২৬ জন নিহত হয়েছে। তাদের মধ্যে শাহাদাত একজন। সর্বকনিষ্ঠ সন্তানকে হারিয়ে বাকরূদ্ধ বাবা-মা।

শিবচর উপজেলার দোতরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে ভাইয়ের লাশ নিতে এসেছেন শহিদুল মোল্লা। তিনি বলেন, আদরের ছোট ভাই শাহাদাত। লকডাউনের ভেতর ঢাকা যেতে না করেছিলাম। তবু গেছে। ভাই তোকে হারালাম ভাই। আব্বা-আম্মাকে কী বলে স্বান্তনা দেব?

সোমবার সকালে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া থেকে ৩২ জন যাত্রী নিয়ে স্পিডবোটটি ছেড়ে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। কাঁঠালবাড়ি ঘাটের কাছে থেমে থাকা বালুবোঝাই একটি বাল্কহেডের ধাক্কা লেগে ডুবে যায় স্পিডবোটটি। এ দুর্ঘটনায় ২৬ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর