বেগুন ক্ষেতের ভেতর দিয়ে পথ না দেয়ার বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা

বেগুন ক্ষেতের ভেতর দিয়ে পথ না দেয়ার বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা

ফরিদপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৪৪ ২১ এপ্রিল ২০২১  

শোকাহত নিহতের পরিবার

শোকাহত নিহতের পরিবার

ফরিদপুরের সালথায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বাড়ির পাশেই একটি বাগানে এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত মো. ওলিয়ার শেখ উপজেলার যদুনন্দী ইউপির সাধুহাটি গ্রামের আদম শেখের ছেলে। তার চার মেয়ে ও দুই ছেলে রয়েছে।

বুধবার সকালে পুলিশ বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন। এ ব্যাপারে নিহতের স্ত্রী হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। 

ওলিয়ারের স্ত্রীর আলেয়া বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমরা গরিব। বাড়ির জমি ছাড়া কোনো জমি নেই। স্বামী বাড়ির পাশে ৩ শতক জমি লিজ নিয়ে বেগুনের আবাদ করছেন। বেগুন ক্ষেতের পাশে প্রতিবেশী ইসহাক শেখের পানের বরজ রয়েছে। ওই পানের বরজে যাওয়া- আসার জন্য ইসহাক স্বামী কাছে বেগুন ক্ষেতের ভেতর দিয়ে একটি পথ বের করে দিতে বলেন। এতে আমার স্বামী রাজি না হলে তার ওপর তিনি ক্ষিপ্ত হয়। 

তিনি আরো বলেন, এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে কয়েক দফা সালিশ হয়েছে। কয়েকবার স্বামীর ওপর হামলাও করেছে ইসহাক ও তার ছেলেরা।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সাধুহাটি গ্রামের একটি চায়ের দোকান থেকে চা খেয়ে বাড়ির ফেরার পথে ইসহাক শেখ ও তার সহযোগীরা স্বামীকে কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। মৃত্যুর আগে স্বামী ওদের নাম বলে গেছে। তবে ইসহাক শেখসহ তার পরিবারের সদস্যরা পালিয়ে যাওয়ায় এ অভিযোগের বিষয়ে তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। 

ওই এলাকার বাসিন্দা সোহেল সরদার বলেন, ওলিয়ার এলাকায় একজন ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিত। তিনি নিতান্তই গরিব। নিজের জমির ওপর একটি ছাপড়াঘর ছাড়া আর কিছুই নেই। তাকে কেন এমন নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হলো তা বুঝতে পারছি না। 

সালথা থানার ওসি আশিকুজ্জামান বলেন, ওলিয়ার ১৫ হাজার টাকা দিয়ে ৩ শতক জমি লিজ নিয়ে সবজির চাষ করেছিলেন। ওই সবজি ক্ষেতের ভেতর দিয়ে পথ বের করাকে কেন্দ্র করে ওলিয়ারের সঙ্গে ও পার্শ্ববর্তী জমির মালিক ইসহাকের বিরোধ সৃষ্টি হয়। এই বিরোধের জের ধরে ওলিয়ারকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে তার পরিবারের অভিযোগ। ওলিয়ারের শরীরে একাধিক কোপের দাগ রয়েছে। তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয় মামলার প্রস্ততি চলছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে