খেলায় শৈশবে ফিরে গেলেন চল্লিশোর্ধ্বরা

খেলায় শৈশবে ফিরে গেলেন চল্লিশোর্ধ্বরা

মেহেরপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪৩ ৩ মার্চ ২০২১  

চল্লিশোর্ধ্বদের দুরন্তপনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ।

চল্লিশোর্ধ্বদের দুরন্তপনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ।

চল্লিশোর্ধ্বদের দুরন্তপনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ। লুঙ্গিতে দড়ি বাঁধা, চোখ বাঁধা বয়স্ক মানুষগুলো যেন ফিরে গেছেন শৈশবে। একটি নির্দিষ্ট গোল চক্করের মধ্যে একটি হাঁস ধরতে চোখ বাঁধা বয়স্ক তরুণদের চেষ্টা। 

চারদিকে শত শত শিশু, কিশোর, বৃদ্ধ ও তরুণদের করতালিতে মুখরিত। অবশেষ হাঁসটি ধরলেন গ্রামের পঞ্চাশোর্ধ্ব সালামত আলী। বস্তা দৌড় আর ময়দার মধ্যে গুপ্তধন খুঁজে বের করতে প্রচণ্ড ঘাম ঝরাতে হয়েছে প্রতিযোগীদের। সব শেষে সবাইকে তাক লাগিয়ে প্রতিযোগিতায় জিতে নেন গ্রামের নাজমুল হোসেন ও গুপ্তধন খুঁজে পান সাইফুল ইসলাম।

শুধু তারাই নয়, শিশু কিশোররাও মেতে উঠেছিল ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ খেলাধুলায়। কলা গাছে উঠে পুরস্কার জিতে নেয় শিশু ইব্রাহিম হোসেন।

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাজীপুর ইউপির হাড়াভাঙ্গা পশ্চিমপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী মিজান ফার্নিচার ও হার্ডওয়্যারের মালিক। মিজানুর রহমান বিলুপ্তপ্রায় গ্রামীণ এ খেলার আয়োজন করেন।

বুধবার হাড়াভাঙ্গা এইচএসকে মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে দিনব্যাপী এ খেলার আয়োজন করা হয়। 

হাড়াভাঙ্গা এইচ এস কে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জসিম উদ্দীনের সভাপতিত্বে এ প্রতিযোগিতায় উপস্থিত ছিলেন কাজীপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আলম হুসাইন, এইসএসকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান, সাহেবনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশীদ, মেহেরপুর জেলা পরিষদের সদস্য মুনছুর আলী, স্থানীয় ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম মহন, সাবেক ইউপি সদস্য মহিবুল ইসলাম, এইসএসকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আরজুল্লাহ প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে