প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান উধাও, খোঁজ দিলেই ৫০ হাজার টাকা

প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান উধাও, খোঁজ দিলেই ৫০ হাজার টাকা

নাটোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:১৭ ১ মার্চ ২০২১  

প্রবাসীর স্ত্রী শম্পা ও ছেলে বাঁধন

প্রবাসীর স্ত্রী শম্পা ও ছেলে বাঁধন

নাটোরের গুরুদাসপুরে টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ ৭ বছরের ছেলেকে নিয়ে পালিয়েছেন এক প্রবাসীর স্ত্রী। স্ত্রী-সন্তানকে খুঁজে পেতে সোমবার দুপুর ১২টা দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছেন প্রবাসী মো. আবুল বাশার।

২৫ ফেব্রুয়ারি ওই উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়নের মাঝপাড়া গ্রামের বাড়ি থেকে উধাও হন ওই প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তান। ঘটনার রাতেই গুরুদাসপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন প্রবাসী আবুল বাশার।

জানা গেছে, ২০১৩ সালে গুরুদাসপুরের মাঝপাড়ার রমজান আলীর ছেলে মো. আবুল বাশার বিয়ে করেন সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার মাগুড়া গ্রামের মো. নিজাম উদ্দিনের মেয়ে শম্পা খাতুনকে। বিয়ের চার মাস পর স্ত্রীকে রেখে সৌদি আরব চলে যান আবুল বাশার। এক বছর পর তাদের একটি ছেলে হয়।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে দেশে ফিরে আসেন আবুল বাশার। এরপর তার অসুস্থ মায়ের চিকিৎসা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। এরই সুযোগে চলতি বছরের ২৫ ফেব্রুয়ারি কাউকে কিছু না জানিয়ে বাড়িতে থাকা ১৭ ভরি স্বর্ণালংকার, পাঁচ লাখ টাকা ও ৭ বছরের সন্তান মো. বাঁধন পারভেজকে নিয়ে পালিয়ে যায় তার স্ত্রী।

আবুল বাশার বলেন, আমি স্ত্রী-সন্তানকে খুব ভালোবাসতাম। তাদের কোনো চাহিদা কখনো অপূর্ণ রাখিনি। সৌদি আরবে থাকাকালীন স্ত্রী শম্পাকে দুইবার ওমরাহ করিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, স্ত্রী ও সন্তান উধাও হওয়ার বিষয়টি পরিবারকে জানিয়েছি। যে ব্যক্তি তাদের খুঁজে পেতে সহযোগিতা করবে, তাকে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার দেব বলে ফেসবুকে ঘোষণা দিয়েছি।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, স্ত্রী-সন্তানের খোঁজ চেয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই প্রবাসী। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর