শ্লীলতাহানি থেকে বাঁচতে দা দিয়ে যুবককে কোপালো স্কুলছাত্রী

শ্লীলতাহানি থেকে বাঁচতে দা দিয়ে যুবককে কোপালো স্কুলছাত্রী

পিরোজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:৫৫ ২৮ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১২:২৬ ২৮ জানুয়ারি ২০২১

যুবকের মাথায় কোপ দিলেন স্কুলছাত্রী (প্রতীকী ছবি)

যুবকের মাথায় কোপ দিলেন স্কুলছাত্রী (প্রতীকী ছবি)

পিরোজপুরের নাজিরপুরে স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানি করতে গিয়ে ভুক্তভোগী ছাত্রীর কোপে মো. সিরাজুল ইসলাম নামে এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছেন। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) রাতে ঘটনাটি ঘটেছে। 

আহত মো. সিরাজুল ইসলাম উপজেলার সদর ইউনিয়নের সাতকাছিমা গ্রামের আশ্রাফ আলীর ছেলে। 

স্থানীয়রা জানান, রাত পৌনে ৮টার দিকে ওই ছাত্রী তাদের বাড়ির দোতালায় বসে বই পড়ছিল। এ সময় সিরাজুল তাদের ঘরে ঢুকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। ঘটনার সময় চিৎকার করলেও তাকে ছাড়েনি যুবক। এতে নিজেকে রক্ষা করতে দা দিয়ে যুবকের মাথায় কোপ দিয়ে নিজেকে শ্লীলতাহানি থেকে রক্ষা করে মেয়েটি। পরে ওই ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ওই যুবককে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক  মো. মোস্তফা কায়সার  জানান, যুবকের মাথায় ধারালো কিছুর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মাথায় ৫টি সেলাই দেয়া হয়েছে। 

সাতকাছিমা বাজার সমিতির সভাপতি মো. পান্নু ফরাজী  জানান, ঘটনাটি শুনেছি। তবে ছাত্রীর বাবা তাদের সম্মানের কথা ভেবে কোনো মামলা দিতে রাজি হননি। তবে যুবকের পরিবার থেকে দাবি করা হচ্ছে সে কিছুটা মানসিক প্রতিবন্ধী।

নাজিরপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো. জাকারিয়া হোসেন জানান, বিষয়টি শুনেছি। তবে কোনো মামলা দায়ের হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম