সেনাবাহিনী ও র‌্যাবের অভিযানে ১৭০০ কেজি গাঁজাসহ একজন আটক

সেনাবাহিনী ও র‌্যাবের অভিযানে ১৭০০ কেজি গাঁজাসহ একজন আটক

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০১:১৯ ২১ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ০১:২২ ২১ জানুয়ারি ২০২১

পার্বত্য চট্টগ্রামের খাগড়াছড়ি জেলার অন্তর্গত লক্ষীছড়ি সেনা জোনের আওতাধীন ইন্দ্রসিংপাড়া সেনা ক্যাম্পের নিকটবর্তী ডানের বানরকাটা এলাকায় গত বুধবার (১৯-০১-২০২১) সেনাবাহিনী এবং র‌্যাব এর যৌথ অভিযানে শান্তু চাকমা নামে একজন গাঁজা ব্যবসায়ীকে আটক করে। ছবি: আইএসপিআর

পার্বত্য চট্টগ্রামের খাগড়াছড়ি জেলার অন্তর্গত লক্ষীছড়ি সেনা জোনের আওতাধীন ইন্দ্রসিংপাড়া সেনা ক্যাম্পের নিকটবর্তী ডানের বানরকাটা এলাকায় গত বুধবার (১৯-০১-২০২১) সেনাবাহিনী এবং র‌্যাব এর যৌথ অভিযানে শান্তু চাকমা নামে একজন গাঁজা ব্যবসায়ীকে আটক করে। ছবি: আইএসপিআর

খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার ইন্দ্রসিংপাড়া সেনা ক্যাম্পের কাছাকাছি ডানের বানরকাটা এলাকায় যৌথ অভিযান চালিয়েছে সেনাবাহিনী ও র‌্যাব।

অভিযানে শান্তু চাকমা নামে এক গাঁজা ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। এ সময় তার কাছ থেকে প্রায় এক হাজার ৭০০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এরপর গাঁজাগুলো পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর নিশ্চিত করেছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মঙ্গলবার বানরকাটা এলাকায় এ অভিযান চালায় সেনাবাহিনী ও র‌্যাব। এ সময় প্রক্রিয়াজাত করা ৮০টি গাঁজার বস্তা এবং ৫শ’ কেজি ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা গাঁজাসহ প্রায় এক হাজার ৭শ’ কেজি গাঁজা উদ্ধার ও পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। এছাড়া প্রায় ৩০ শতাংশ জমির চাষ করা গাঁজার ক্ষেত ধ্বংস করা হয়। দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় এসব অবৈধ গাঁজা চাষা করে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের অর্থের অন্যতম উৎস হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে বলে ধারণা করছেন অভিযানকারী সেনা ও র‍্যাব কর্মকর্তারা।

এসব দুর্গম এলাকায় গাঁজার চাষ বন্ধ করতে যৌথবাহিনীর অভিযান আরো জোরদার করা হয়েছে বলে জানান তারা। পাহাড়ে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে এ ধরনের বিশেষ অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছে এলাকার সচেতন জনগণ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর