সিসিটিভি ফুটেজে মিলল জান্নাতুলের ৯ তলা থেকে পড়ে যাওয়ার বিভৎস দৃশ্য

সিসিটিভি ফুটেজে মিলল জান্নাতুলের ৯ তলা থেকে পড়ে যাওয়ার বিভৎস দৃশ্য

কুমিল্লা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৩:৫১ ৩ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১২:০৭ ৩ ডিসেম্বর ২০২০

জান্নাতুল হাসিন

জান্নাতুল হাসিন

কুমিল্লায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জান্নাতুল হাসিনের মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। তিনি আত্মহত্যা করেছেন নাকি খুন হয়েছেন তা এখনো জানা যায়নি। তবে জান্নাতুলের ৯ তলা ভবনে প্রবেশ ও ছাদ থেকে পড়ে যাওয়ার একটি বিভৎস দৃশ্য সিসিটিভিতে ধরা পড়েছে। যা এরই মধ্যে পুলিশের হাতে পৌঁছেছে।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক বলেন, আমরা ময়নাতদন্ত রিপোর্টের অপেক্ষায় আছি। পাশাপাশি হাসিনের স্বজন ও বন্ধুদের সঙ্গে কথা বলছি। আশা করছি দ্রুত মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানাতে পারব।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) বিকেলে বুড়িচং উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের উত্তরগ্রামের নিজ বাড়িতে হাসিনকে দাফন করা হয়েছে।

আরো পড়ুন: জান্নাতুলের মৃত্যু নিয়ে রহস্যের ধুম্রজাল, নেপথ্যে কি প্রেম?

মঙ্গলবার ধর্মসাগর এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবনের কাছ থেকে হাসিনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ধারণা করা হচ্ছে, ওই নয় তলা ভবন থেকে তিনি লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। ২৩ বছরের হাসিন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস টেকনলজিতে (বিইউবিটি) পড়তেন। তিনি নগরীর ধর্মসাগর পশ্চিম পাড়ার ইদ্রিস মেহেদীর মেয়ে।

তার মৃত্যুর একদিন পর ওই ভবন সংলগ্ন একটি রাজনৈতিক কার্যালয়ে বসানো সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পেয়েছে পুলিশ। দেড় মিনিটের ওই ফুটেজে দেখা যায়, হাসিন একাই ওই ভবনে ঢুকছেন। এর ঠিক ১০ মিনিট পরে হাসিনকে ভবন থেকে নিচে পড়তে দেখা যায়। লোকজন ছুটে গিয়ে তার মাথা ও শরীরে পানি ঢালতে থাকে।

আরো পড়ুন: ফ্যানে ঝুলছে ডাক্তারি পড়ুয়া বোনের লাশ, দরজা ভেঙে দেখল ছোটভাই

ভবনের নিরাপত্তাকর্মী হাবিবুর রহমান জানান, হাসিন ঢোকার সময় তিনি কোথায় যাবেন জানতে চেয়েছিলেন। এ সময় হাসিন ছয়তলায় রাফি আঙ্কেলের মেয়ে সোহানার কাছে যাওয়ার কথা জানান।

হাসিনের আত্মহত্যার দিন ওই এলাকার স্থানীয় ১০ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মনজুর কাদের মনি জানান, আমরা অফিসের ভেতরে বসে কাজ করছিলাম। হঠাৎ অফিসের সামনে বিকট শব্দ শুনে বের হয়ে দেখি একটি মেয়ে মাটিতে পড়ে আছে। পরে কয়েকজন দৌঁড়ে এসে মাথায় পানি দেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু তার আগেই মেয়েটির মৃত্যু হয়।

হাসিনের কিছু বন্ধু ও প্রতিবেশী জানান, একটি ছেলের সঙ্গে প্রেমের সর্ম্পক ছিল তার। সম্প্রতি ছেলেটি আরেকজনকে বিয়ে করায় হতাশায় ভুগছিলেন হাসিন।

আরো পড়ুন তরুণীদের অন্তরঙ্গ দৃশ্যের ছবি ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল, অবশেষে ধরা

তার বাবা ইদ্রিস মেহেদি বলেন, সোমবার কাউকে কিছু না জানিয়ে ঢাকা থেকে কুমিল্লায় চলে আসেন হাসিন। পরদিন দুপুরে সে আমাদের এক হাজার টাকা দেয়। টাকা কোথায় পেয়েছে জানতে চাইলে হাসিন বলেছিল সে ব্যাংকে ইন্টার্ন করছে। এটা তার প্রথম উপার্জন।

এর ঘণ্টাখানেক পর হাসিন শ্যাম্পু আনার কথা বলে বাসা থেকে বেরিয়ে যান। পরে তার মৃত্যুর খবর পায় পরিবার। হাসিনের অবস্থান সম্পর্কে পুলিশ ও ছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জান্নাতুল হাসিন ঢাকায় বড় বোনের বাসায় থাকতেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম/এমকে/জেএস