কমিটি বিহীন চলছে আখাউড়া পৌর যুবদলের কার্যক্রম

কমিটি বিহীন চলছে আখাউড়া পৌর যুবদলের কার্যক্রম

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:১৮ ২ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:৪৫ ২ ডিসেম্বর ২০২০

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌর যুবদলের কার্যক্রমে বিশৃঙ্খল অবস্থা বিরাজ করছে। গত প্রায় সাত মাস ধরে নেই পৌর যুবদলের কমিটি। মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি, অদক্ষ নেতৃত্ব ও মূল দলে নেতা চলে যাওয়াসহ নানা কারণে ভেঙে দেয়া হয়েছে পৌর যুবদলের কমিটি।

কমিটি ছাড়া সাংগঠনিক কার্যক্রম চলায় ঝিমিয়ে পড়েছে তৃণমূল নেতাকর্মীরা। সেই সঙ্গে কেন্দ্রীয় কর্মসূচিসহ সব ধরনের কর্মকাণ্ডে দলীয় নেতাকর্মীরা নিজেদেরকে অনেকটাই যেন গুটিয়ে রেখেছেন। তবে কখন কমিটি হচ্ছে কেউ সহসাই বলতে পারছে না। এদিকে পদ পেতে সম্ভাব্য প্রার্থীরা তৎপরতা কিছুটা শুরু করলেও কোনো উদ্যোগ না থাকায় নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বাড়ছে।

পৌর যুবদলের একাধিক নেতাকর্মী জানান, কমিটি ভেঙে দেয়ার ফলে কেন্দ্রীয় কর্মসূচিসহ সাংগঠনিক কার্যক্রমে তারা উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারছেন না। তাছাড়া দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতেও কার্যত ভূমিকা রাখতে না পারায় জনগণের সমর্থন হারাচ্ছেন তারা। তবে বিএনপির একাধিক নেতাকর্মী বলছেন সাংগঠনিক কাজে গতি ফিরিয়ে আনতে স্বল্প সময়ের মধ্যে কমিটি গঠন করা হবে। বর্তমানে সব কিছু প্রক্রিয়াধীন হয়ে আছে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালে মো. জাকির হোসেনকে সভাপতি ও জাবেদ আহম্মদ খানকে সম্পাদক করে পৌর যুবদলের কমিটি গঠন করা হয়। একপর্যায়ে মো. জাকির হোসেনকে উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক করে আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়।  

এদিকে পৌর যুবদলের নেতারা শুরু থেকেই সাংগঠনিক কাজে দক্ষতার পরিচয় দিতে পারেননি। পৌর যুবদলকে নতুন করে ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও গত সাত মাসে কমিটি গঠন করতে না পারায় নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বাড়ছে।

পৌর যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাবেদ আহম্মদ খান বলেন, মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণার পর এখন পর্যন্ত কোনো কমিটি গঠন করা হয়নি। ফলে সাংগঠনিক কার্যক্রম অনেকটাই গতিহীন হয়ে পড়ছে। কমিটি বিলুপ্ত হওয়ার পর থেকে পৌর যুবদল অভিভাবকহীন হয়ে পড়েছে। বেশিরভাগ নেতাকর্মী নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছেন। পদ পদবি ছাড়া কোনো লোক আসতে চাচ্ছে না।

পৌর যুবদল নেতা মো. নয়ন ভূঁইয়া বলেন, পৌর যুবদলকে নতুন আঙ্গিকে সাজানোর চেষ্টা চলছে। আশা করছি দক্ষ ও ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ/এইচএন