রঙ তুলিতে জীবন গড়তে চান প্রতিবন্ধী তামান্না  

রঙ তুলিতে জীবন গড়তে চান প্রতিবন্ধী তামান্না  

বরিশাল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৫৬ ২৬ নভেম্বর ২০২০  

রঙ-তুলিতে ব্যস্ত প্রতিবন্ধী তামান্না

রঙ-তুলিতে ব্যস্ত প্রতিবন্ধী তামান্না

রঙ তুলিতে তার রয়েছে জাদুর ছোঁয়া, রয়েছে সূচিকর্মেও বেশ অভিজ্ঞতা। বরিশালের উজিরপুর উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের হতদরিদ্র বাবা ওবায়দুল কবির বিশ্বাস ও মা আফরোজা বেগমের একমাত্র সন্তান তামান্না জাহানের এমন গুণ সবাইকে মুগ্ধ করে চলেছে। কিন্তু সবার যত আফসোস তার বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধিতা নিয়ে। এলাকাবাসীর মতে, একটু সহায়তা পেলে তামান্না তার মেধা দিয়ে অনেক দূর এগিয়ে যাবে। 

ছোট বেলাতেই ভয়াবহ অসুখে বাক ও শ্রবণ শক্তি হারিয়ে ফেলেন তামান্না। তার চিকিৎসা করাতে গিয়ে একে একে সহায় সম্বল এমনকি ভিটেমাটিও হারান বাবা-মা। বাবা বর্তমানে কর্মক্ষমতা হারিয়ে নিজেই সম্পূর্ণ অসুস্থ অবস্থায় দিনাতিপাত করছেন। মা সন্তানের চিন্তায় বিভিন্ন অফিস ও মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। কারণ তাদের মৃত্যুর পরে প্রতিবন্ধী সন্তান যেন সমাজের বোঝা না হন। 

২০ বছর বয়সী তামান্না ছোট বেলা থেকেই চিত্রকর্মে পারদর্শী। নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে কোনো প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা গ্রহণ না করেই বঙ্গবন্ধুর ভাষণসহ বিভিন্ন ছবিতে যেন জীবন্তরূপ দান করেছেন। শুধু তাই নয়, হাতের তুলির ছোঁয়ায় বিভিন্ন মনোমুগ্ধকর দৃশ্য এঁকে চলছেন। তামান্না জানেন না তার ভবিষ্যৎ কোথায়? সামান্য প্রতিবন্ধী ভাতা দিয়েই চলছে তাদের সংসার।

তার মা আফরোজা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, গরিবের সংসারে যেন প্রতিবন্ধী সন্তান জন্ম না নেয়। সন্তানকে কোথাও এতটুকু মাথা গোঁজার ঠাই, চাকরি অথবা বিয়ে দিতে পারলেই যেন শান্তিতে মরতে পারতাম। প্রতিবন্ধীদের জন্য সরকার অনেক কিছু করেছে শুনেছি, আমাদের পাশে নেই কোনো বিত্তবান ব্যক্তি, নেই কোনো ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যার মাধ্যমে আমরা সাহায্য সহযোগিতা পেতে পারতাম। তামান্নার অসহায় বাবা-মা প্রধানমন্ত্রীসহ প্রশাসনসহ সমাজের বিত্তবান ব্যক্তিদের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ