রায়হান হত্যা: ফরেনসিক পরীক্ষায় যাচ্ছে এসআই আকবরের জিনিসপত্র

রায়হান হত্যা: ফরেনসিক পরীক্ষায় যাচ্ছে এসআই আকবরের জিনিসপত্র

সিলেট প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৩:৩১ ২৫ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ২০:২৫ ১২ ডিসেম্বর ২০২০

এসআই(বরখাস্ত) আকবর হোসেন

এসআই(বরখাস্ত) আকবর হোসেন

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার ডোনা সীমান্ত থেকে উদ্ধারকৃত মোবাইল ফোন, সিমকার্ড ও কাপড়চোপড় এসআই (বরখাস্তকৃত) আকবর হোসেন ভুইয়ার বলেই প্রাথমিকভাবে শনাক্ত করেছে পিবিআই। তবে অধিকতর নিশ্চিত হতে তার জিনিসপত্র ফরেনসিক পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পুলিশ সুপার খালেদ উজ জামান। তিনি জানান, যেসব জিনিসপত্র উদ্ধার করা হয়েছিল, সেগুলো আকবর হোসেন ভুইয়ার বলে মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে অধিকতর নিশ্চিত ও তথ্য উদ্ধারের জন্য এগুলোর ফরেনসিক পরীক্ষা হবে।

তিনি আরো জানান, এসআই আকবরের উদ্ধার মোবাইল ও সিমকার্ড রায়হান হত্যায় কিংবা পালিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়েছিল কী-না, তা জানতে ফরেনসিক পরীক্ষা সহায়ক হবে।

পুলিশ জানিয়েছে, সিলেট মহানগর পুলিশের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে রায়হান আহমদ হত্যার ঘটনার মামলার প্রধান আসামি আকবর। রায়হান আহমদ হত্যার ঘটনায় পলাতক ছিলেন এসআই আকবর হোসেন ভুইয়া। ঘটনার ২৯ দিন পর গত ৯ নভেম্বর সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার লক্ষ্মীপ্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নের ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এরপর গত ১৯ নভেম্বর রাতে ওই একই এলাকায় থেকে আকবরের দুটি মুঠোফোন, তিনটি সিমকার্ড, শার্ট-প্যান্ট  ও গেঞ্জি, ২০ টাকার একটি নোট, তার দুটি পাসপোর্ট সাইজ ছবি এবং এক মহিলার দুটি পাসপোর্ট সাইজ ছবি উদ্ধার করা হয়। কানাইঘাট থানার ওসি মো. শামসুদ্দোহা ও জকিগঞ্জ থানার ওসি মীর মো. আবদুন নাসের এসব জিনিসপত্র উদ্ধারে নেতৃত্ব দেন। সেখানে একটি পাহাড়চূড়ায় কালো ব্যাগের মধ্যে এসব জিনিসপত্র রাখা ছিল। উদ্ধারকৃত জিনিসপত্র রায়হান হত্যা মামলার তদন্তের দায়িত্বে থাকা পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ। পরে এসব জিনিসপত্র আসলেই আকবরের কী-না, তা খতিয়ে দেখার উদ্যোগ নেয় পিবিআই।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম/জেডএম