পকেট কমিটি নিয়ে খানসামা বিএনপিতে দ্বন্দ্ব

পকেট কমিটি নিয়ে খানসামা বিএনপিতে দ্বন্দ্ব

দিনাজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৫৭ ৩০ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৭:১২ ৩০ অক্টোবর ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার আঙ্গারপাড়া ইউপি বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্ব দেখা দিয়েছে। এ কমিটিকে জেলার নেতাদের পকেট কমিটি দাবি করে বাতিল ঘোষণা ও নতুন কমিটির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে উপজেলা বিএনপির একাংশ ও ইউপি বিএনপির পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীরা। উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমিনুল হক চৌধুরীকে অবরুদ্ধও করে রেখেছে তারা।

বুধবার সন্ধ্যায় খানসামা উপজেলার পাকেরহাট বাজারে নিজ দোকানে অবরুদ্ধ হন উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমিনুল হক চৌধুরী। এরপর তার বাড়ি একই উপজেলার হাসিমপুর চৌধুরীপাড়ায় অবস্থান করে পদবঞ্চিতরা।

ইউপি বিএনপির পদবঞ্চিতদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সদ্য ঘোষিত আহ্বায়ক কমিটিকে অস্বীকার করে বিএনপির নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করেন আমিনুল হক চৌধুরী। এরপর জেলা বিএনপির পকেটের নেতাদের নিয়ে নতুন কমিটি গঠন করেন। নতুন এই কমিটি নিয়ে টালবাহানা শুরু করায় উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির একাংশ ও ইউপি বিএনপির পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীরা আমিনুল হক চৌধুরীকে তার দোকানে অবরুদ্ধ করে রাখে। এরপর আগের কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি ঘোষণার দাবিতে তার বাড়িতেও অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে উপজেলা বিএনপির দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হলে অবস্থান কর্মসূচি তুলে নেয় পদবঞ্চিতরা।

খানসামা উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক রবিউল আলম তুহিন জানান, পকেট কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি প্রকাশ করতে আহ্বায়কের সঙ্গে বসার কথা ছিল কিন্তু তিনি বিষয়টি নিয়ে টালবাহানা শুরু করেন। এতে তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দেয়। পরে তারা আহ্বায়ককে অবরুদ্ধ ও তার বাড়িতে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে দ্রুত দ্বন্দ্ব নিরসন করে পকেট কমিটি বাতিল ঘোষণা ও নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানিয়ে অবস্থান কর্মসূচি তুলে নেয় ইউপি আঙ্গারপাড়া বিএনপির পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীরা।

জানতে চাইলে খানসামা উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমিনুল হক চৌধুরী বলেন, দলের স্বার্থে যেকোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে। ইউপি বিএনপির যে আহ্বায়ক কমিটি করা হয়েছে তা বিলুপ্ত করা সম্ভব নয়। তবে পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীদের বিষয়টি বিবেচনায় রাখা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/টিআরএইচ