ঘুষ নেয়ার অভিযোগে ওসি প্রত্যাহার, কনস্টেবল বরখাস্ত

ঘুষ নেয়ার অভিযোগে ওসি প্রত্যাহার, কনস্টেবল বরখাস্ত

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৪:৩১ ৩০ অক্টোবর ২০২০  

ঘুষ নেয়ার অভিযোগে ওসি মোখলেছুর প্রত্যাহার

ঘুষ নেয়ার অভিযোগে ওসি মোখলেছুর প্রত্যাহার

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোখলেছুর রহমান আকন্দকে ঘুষ নেয়ার অভিযোগে প্রত্যাহার করা হয়েছে। একইসঙ্গে এমদাদ নামে এক কনস্টেবলকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ওসিকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত ও কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ময়মনসিংহের এসপি আহমার উজ্জামান বলেন, অনিয়মের অভিযোগে ওসিকে প্রত্যাহার ও কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার ঈশ্বরগঞ্জ ইউপির কাঁকনহাটি গ্রামের আসাদুজ্জামান লুলু পৈতৃক জমিতে পানের বরজ, ফলজ বাগান ও পুকুর খনন করে মাছ চাষ করে আসছিলেন। এ নিয়ে প্রতিবেশী নয়ন মিয়ার সঙ্গে বিরোধ ছিল। বিরোধের জেরে লুলুর বাড়িঘর ভাঙচুর ও হামলার পরিকল্পনা করে নয়ন মিয়া।

বিষয়টি জানতে পেরে আসাদুজ্জামান লুলু গত ২১ অক্টোবর এর প্রতিকার চেয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। ওসি অভিযোগের বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে আসাদুজ্জাসান লুলুকে থানা থেকে ফিরিয়ে দেন।

পরদিন (২২ অক্টোবর) নয়নসহ তার লোকজন হামলা চালিয়ে আসাদুজ্জামান লুলুর বাড়িঘর ভাঙচুর করে ও পানের বরজের ক্ষতি করে। লুলুর ভাই আবু রায়হান রুমেল বাধা দিলে তাকেও মারধর করে হামলাকারীরা।

পরে আসাদুজ্জামান লুলু হামলার বিষয়টি ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোখলেছুর রহমানকে জানালে তিনি ২০ হাজার টাকা দাবি করেন। টাকা ছাড়া কাজ হবে না বলে জানালে নিরুপায় হয়ে ১৭ হাজার টাকা দেন। কনস্টেবল এমদাদকেও ১৫০০ টাকা দেন লুলু।

এ ঘটনায় ২৫ অক্টোবর আসাদুজ্জামান লুলু ময়মনসিংহ এসপি বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগ তদন্ত করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম