চুরিতে বাধা দেয়ায় ব্লেড দিয়ে মাদরাসাছাত্রকে জখম

চুরিতে বাধা দেয়ায় ব্লেড দিয়ে মাদরাসাছাত্রকে জখম

নোয়াখালী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:১২ ২৫ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৬:২১ ২৫ অক্টোবর ২০২০

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

চুরিতে বাধা দেয়ায় ব্লেড দিয়ে এক মাদরাসাছাত্রকে পাশবিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। রোববার নোয়াখালী সদর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। নির্যাতিত শিশুকে নোয়াখালী জেলা শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

জানা গেছে, নির্যাতনের শিকার শিশু মোঃ নাঈম উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের পশ্চিম নরোত্তমপুর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে। সে স্থানীয় সালেহপুর দারুল উলুম মাদরাসার ৭ম শ্রেণির ছাত্র। সকালে স্থানীয় কিছু বখাটে এ নির্যাতন চালায়। তবে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা বলতে পারেনি শিশু ও তার পরিবার।

নির্যাতনের শিকার শিশুর পরিবার জানায়, রবিবার সকালে মাদরাসায় যাওয়ার পথে একটি ছেলে সুপারি চুরি করছে দেখে সে বাধা দিয়ে চলে যায়। এ সময় পিছন থেকে অচেনা তিনজন কিশোর তার চোখ ও মুখ ধরে পার্শ্ববর্তী বাগানে নিয়ে গিয়ে তাকে মারধর করে। এসময় তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ব্লেড দিয়ে জখম করে। এক পর্যায়ে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে জ্ঞান ফিরলে বাগান থেকে বের হলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পরিবারকে জানায়। পরবর্তীতে দুপুরে তাকে জেলা শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

এ বিষয়ে সুধারাম থানার ওসি নবির হোসেন জানান, গণমাধ্যম কর্মীদের মাধ্যমে বিষয়টি শুনেছেন। তবে কেউ অভিযোগ করেননি। এ ঘটনার খোঁজ খবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ