ঝালকাঠিতে কর্মী হারিয়ে দুর্বল জাপা

ঝালকাঠিতে কর্মী হারিয়ে দুর্বল জাপা

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:০১ ২৫ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৬:৫১ ২৫ অক্টোবর ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঝালকাঠিতে কর্মী হারিয়ে দুর্বল হয়ে পড়েছে জাতীয় পার্টি (জাপা)। নিজেদের দুঃসময়ে নেতাদের পাশে না পেয়ে দল থেকে সরে দাঁড়িয়েছে অনেক কর্মী। এমনকি করোনা পরিস্থিতিতেও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ায়নি দলটি। জেলায় এখন জাতীয় পার্টি আছে শুধুই নামে।

কর্মীরা জানান, জেলা জাতীয় পার্টির সিনিয়র নেতারা কর্মীদের পাশে থাকছেন না। এতে তৃণমূলের কর্মীদের ক্ষোভ বাড়ছে। কেউ কেউ দলের ওপর আস্থা হারাচ্ছে। দলীয় কার্যক্রমও তেমন নেই।

কাঁঠালিয়া উপজেলার সাবেক শিক্ষক হারুন অর রশিদ বলেন, নির্বাচনের পর থেকেই ঝালকাঠির জনগণের পাশে নেই জাতীয় পার্টি। দলের দুঃসময়ে যেসব কর্মী ত্যাগ স্বীকার করে মাঠে অবস্থান করেছে তাদেরও মূল্যায়ন করেননি নেতারা। এ কারণে কর্মীদের পাশাপাশি জেলার মানুষের সমর্থনও হারিয়েছে জাতীয় পার্টি।

আইনজীবী তরিকুল ইসলাম বলেন, রাজনীতির মাঠে টিকে থাকতে হলে জাতীয় পার্টিকে মানুষের সঙ্গে মিশতে হবে। শুধু নির্বাচনের সময় দুয়ারে দুয়ারে গেলে হবে না। দুঃসময়ে অসহায় মানুষের পাশে থাকতে হবে। কিন্তু ঝালকাঠিতে জাতীয় পার্টির সে অবস্থান নেই। ব্যক্তিস্বার্থে কয়েকজন নেতা ঝালকাঠি জাতীয় পার্টিকে ব্যবহার করছেন। এ কারণে ত্যাগী কর্মীরাও আর দলের প্রয়োজনে এগিয়ে আসে না।

জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান বলেন, আপাতত আমাদের দলীয় কোনো কর্মসূচি নেই। করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য সাধ্যমতো কিছু করার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

ঝালকাঠি জাতীয় পার্টির সভাপতি আনোয়ার হোসেন আনু বলেন, আমরা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছি না কথাটি সঠিক নয়। সাধ্যমতো চেষ্টা করছি। কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশে প্রায় ১ হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/এইচএন