পুলিশ পরিচয়ে ২৮ লাখ টাকা লুট

পুলিশ পরিচয়ে ২৮ লাখ টাকা লুট

দাগনভূঞা (ফেনী) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৫৬ ২২ অক্টোবর ২০২০  

টাকা -ফাইল ছবি

টাকা -ফাইল ছবি

ফেনীর দাগনভূঞায় পুলিশ পরিচয়ে ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট আবু জাফর শাহীনের কাছ থেকে ২৮ লাখ টাকা নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

বুধবার বিকেলে উপজেলার মাতুভূঞা ইউপির উত্তর আলীপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আবু জাফর সোনাগাজী উপজেলার চরলক্ষ্মীগঞ্জ গ্রামের ছাদত আলী মুহুরি বাড়ির আবুল কাশেমের ছেলে। তিনি সোনাগাজী উপজেলার কুঠিরহাট ও তাকিয়া বাজার ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট।

আবু জাফর শাহীন জানান, তিনি বুধবার বিকেলে ইসলামী ব্যাংক দাগনভূঞা শাখা থেকে ২৭ লাখ ৬১ হাজার ৫০০ টাকা তোলেন। টাকাগুলো একটি কালো ব্যাগে ঢুকিয়ে সন্ধ্যার আগে তিনি মোটরসাইকেলে সোনাগাজীর কুঠিরহাট ফিরছিলেন। পথে দাগনভূঞার উত্তর আলীপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে পৌঁছালে একটি সাদা প্রাইভেটকার তার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে।

এ সময় গাড়ি থেকে পাঁচ যুবক নেমে নিজেদের পুলিশ পরিচয় দিয়ে ব্যাগে ইয়াবা আছে বলে হাতকড়া পরিয়ে গাড়িতে তোলেন। এরপর তার কাছে থাকা টাকার ব্যাগ ও মোবাইল ছিনিয়ে নেন যুবকরা। পরে তাকে কুমিল্লার দয়াপুর এলাকায় ফেলে যান। স্থানীয়রা শাহীনকে উদ্ধার করে স্বজনদের খবর দেয়।

এদিকে, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। রাতেই দাগনভূঞা থানায় মামলা করেন আবু জাফর শাহীন।

ইসলামী ব্যাংক দাগনভূঞা শাখার ম্যানেজার মো. জাফর উদ্দিন বলেন, ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট আবু জাফর শাহীন কুঠিরহাট ও তাকিয়া বাজার এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে কাজ করেন। তিনি ব্যাংকের সহযোগিতা চাননি। চাইলে পুলিশের সহযোগিতায় টাকা পৌঁছে দেয়া হতো।

আবু জাফর বলেন, সব সময় টাকা নিয়ে আমি ফাজিলের ঘাট বেইলি ব্রিজ দিয়ে যাতায়াত করি। ব্রিজের কাজ চলার কারণে উত্তর আলীপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজ সড়ক দিয়ে যাই।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দাগনভূঞা থানার ওসি (তদন্ত) পার্থ প্রতিম দেব বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের সন্ধানে কাজ করছে পুলিশ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর