পদ্মা সেতু এখন যমুনার চেয়েও দীর্ঘ

পদ্মা সেতু এখন যমুনার চেয়েও দীর্ঘ

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৩৪ ১৯ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৯:১৫ ১৯ অক্টোবর ২০২০

স্বপ্নের পদ্মাসেতু এখন যমুনা সেতুর চেয়েও বড়। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

স্বপ্নের পদ্মাসেতু এখন যমুনা সেতুর চেয়েও বড়। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া প্রান্তে ৩ ও ৪ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হয়েছে পদ্মা সেতুর ৩৩তম স্প্যান ‘ওয়ান সি’। এর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো সেতুর ৪ হাজার ৯৫০ মিটার।

নতুন স্প্যান বসানোর সঙ্গে সঙ্গেই যমুনা সেতুকে ছাড়িয়ে গেল দেশের অন্যতম মেগাপ্রকল্প স্বপ্নের পদ্মা সেতু। যমুনা সেতুর দৈর্ঘ্য ৪ দশমিক ৮ কিলোমিটার। এর আগে, ১১ অক্টোবর ৩২তম স্প্যান বসানোয় পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য হয় যমুনা সেতুর সমান।

সোমবার বেলা ১২টা ১০ মিনিটে স্প্যানটি বসানো হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন পদ্মা সেতু প্রকল্পের সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা।

এর আগে, সকালে মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ধূসর রঙয়ের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানকে বহন করে রওনা দেয় ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ ভাসমান ক্রেনটি। এরপর প্রায় এক কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করে সেতুর ৩ ও ৪ নম্বর পিলারের কাছে পৌঁছায়।

মাওয়া প্রান্তে ৩ ও ৪ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হয়েছে পদ্মা সেতুর ৩৩তম স্প্যান ‘ওয়ান সি’। এরমধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো সেতুর ৪ হাজার ৯৫০ মিটার। একইসঙ্গে যমুনা সেতুকে ছাড়িয়ে গেল দেশের অন্যতম মেগাপ্রকল্প স্বপ্নের পদ্মা সেতু। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

প্রকৌশলীরা জানান, পদ্মা সেতুতে বসানো বাকি রয়েছে ৮টি স্প্যান। যা বসবে আরো ৯টি পিলারের ওপর, এগুলো হলো- ১, ২, ৮, ৯, ১০, ১১, ১২। স্প্যানগুলো মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে প্রস্তুত রয়েছে।

এদিকে ৪১ স্প্যানের ওপর ২ হাজার ৯১৭টি রোড স্লাবের মধ্যে বসানো হয়েছে ১ হাজার রোড স্লাব। এছাড়া রেললাইনের জন্য ২ হাজার ৯৫৯টি রেল স্লাবের মধ্যে বসানো হয়েছে ১ হাজার ৬০০টি রেল স্লাব।

২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সেতুর জাজিরা প্রান্তে ৩৭-৩৮ নম্বর পিলারে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে সেতু দৃশ্যমান হয়। চলতি বছরের ৩০ মে পর্যন্ত জাজিরা প্রান্তে ২৮টি স্প্যান বসানো হয়। এরপর শুরু হয় মাওয়া প্রান্তে স্প্যান বসানোর কাজ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/এমআর