ভূমি অফিসে পোশাক খুলে গানের আসর বসিয়ে কর্মকর্তার ফেসবুক লাইভ

ভূমি অফিসে পোশাক খুলে গানের আসর বসিয়ে কর্মকর্তার ফেসবুক লাইভ

যশোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৩:১৯ ১ অক্টোবর ২০২০  

ভূমি অফিসে পোশাক খুলে গানের আসর বসিয়ে কর্মকর্তার ফেসবুক লাইভ (ছবি ভিডিও থেকে নেয়া)

ভূমি অফিসে পোশাক খুলে গানের আসর বসিয়ে কর্মকর্তার ফেসবুক লাইভ (ছবি ভিডিও থেকে নেয়া)

সরকারি ভূমি অফিসে খালি গায়ে গান বাজনার ‘আসর’ বসিয়েছেন এক কর্মকর্তা। শুধু তাই নয়, গানের আসরের ফেসবুক লাইভ করেছেন তিনি। যা সামাজিকমাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর সমালোচনা ঝড় উঠেছে। 

এমন ঘটনা ঘটিয়েছেন যশোরের চৌগাছা উপজেলার ধুলিয়ানি ইউপি ভূমি অফিসের উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (নায়েব) রেজাউল ইসলাম।

সরকারি ওই অফিসে অভিযুক্ত রেজাউল ইসলামের রয়েছে ব্যক্তিগত বাদ্যযন্ত্রের সেট। বিষয়টি নজরে এসেছে উপজেলা প্রশাসনেরও।

অভিযোগে জানা গেছে, গত ২৯ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টা থেকে প্রায় দুই ঘণ্টা ধুলিয়ানি ইউপির নায়েব অফিসে তিনি এই গানের আসর বসিয়ে (Babu Hasan) নামে একটি ফেসবুক আইডিতে গানের আসরের লাইভ প্রচার করেন।

ছড়িয়ে পড়া দুটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, নিজের চেয়ারে বসে রয়েছেন বাবরি চুলের নায়েব রেজাউল ইসলাম। পাশে লুঙ্গি পরে খোলা গায়ে বসে আছেন ইউপি সদস্য গোলাম মোস্তফা।

এছাড়া আরো কয়েকজন আশেপাশে বসে রয়েছেন। এক ব্যক্তি ঘাড়ে ঝুলানো একটি বাদ্যযন্ত্র গানের সঙ্গে বাজাচ্ছেন। অন্য একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একজন একটি গান গাচ্ছেন। বাদ্যযন্ত্র বাজছে। মাঝে মাঝে সবাই গানের সুরে সুর মেলাচ্ছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ধুলিয়ানি ইউপি উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (নায়েব) রেজাউল ইসলাম প্রায়ই তার অফিসে অফিস চলাকালীন গানের আসর বসান। এ সময় ওই অফিসে আসা সেবাগ্রহীতাদের বাইরে অপেক্ষা করতে বলা হয়।

মঙ্গলবার সকালে অফিসে এসেও তিনি অফিসে গানের আসর বসান। সকালে একজন সেবাগ্রহীতা রেজাউলের অফিসে তার জমির পর্চা সংক্রান্ত কাজে এলে তাকে নায়েব বাইরে দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করতে বলেন। তাকে বলেন, ‘দুই ঘণ্ট পর আপনার কাজ করে দেয়া হবে।’

এ সময় সেখানে গানের আসরের প্রস্তুতি চলছিল। মঙ্গলবার নায়েব রেজাউল ইসলাম গানের আসর বসিয়ে বাবু হাসান নামের একটি ফেসবুক আইডিতে লাইভ প্রচার করেন। দুপুর প্রায় ১টা পর্যন্ত ফেসবুক লাইভে এই গানের আসরের প্রচার চলে। পরে সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

ধুলিয়ানি ইউপি উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (নায়েব) রেজাউল ইসলাম বলেন, ইউপির ভূমির কর আদায়ের লক্ষ্যে মাইকিংয়ের জন্য রেকর্ড করা হচ্ছিল। রেকর্ডের মাঝে মাঝে গান বাজানো হয়। উপস্থিত একজন না বুঝে শুধু গানের অংশ ফেসবুকে ছেড়েছেন। এ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করছি আমি।

চৌগাছা ইউএনও প্রকৌশলী এম. এনামুল হক বলেন, বিষয়টি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। অভিযুক্ত ওই নায়েবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম