কাশবনে তরুণীর শ্লীলতাহানি, যুবক আটক

কাশবনে তরুণীর শ্লীলতাহানি, যুবক আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৫৭ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:০৬ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

জুনায়েদ

জুনায়েদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে কাশবনে ঘুরতে যাওয়া এক তরুণীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে জুনায়েদ নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুরে পর্নোগ্রাফি মামলা দিয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হয়। এর আগে রোববার রাতে শহরের দক্ষিণ পৈরতলা এলাকা থেকে জুনায়েদকে আটক করা হয়। তিনি একই এলাকার আব্দুল আউয়ালের ছেলে।

সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মুহাম্মদ শাহজাহান জানান, তরুণীকে শ্লীলতাহানির মূল অভিযুক্ত রহিমকে এখনো আটক করা সম্ভব হয়নি। আটক জুনায়েদ তার বন্ধু ও ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জুনায়েদ ঘটনায় জড়িত এবং ঘটনাস্থলে উপস্থিত সবার নাম বলেছেন। শাকিল নামে তাদের আরেক বন্ধু এ ঘটনার ভিডিও ধারণ করেন।

ওসি (তদন্ত) আরো জানান, ওই তরুণীকে শ্লীলতাহানি করে ভিডিও ধারণের ঘটনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা ও পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেছে পুলিশ। ওই মামলায় জুনায়েদকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়।

২৩ সেপ্টেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ফেসবুকভিত্তিক সংগঠন ‘আমরাই ব্রাহ্মণবাড়িয়া’র পেজে এক তরুণীকে শ্লীলতাহানির ভিডিও পোস্ট করা হয়। যা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়।

ভিডিওতে দেখা যায়, কালো বোরকা পরা এক তরুণী শহরের পুনিয়াউট এলাকার কাশবনে ঘুরতে এসে স্থানীয় তিন থেকে চার বখাটের কবলে পড়েন। ওই তরুণীর ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে টাকা নিয়ে যায় তারা। উত্ত্যক্ত থেকে বাঁচতে বখাটেদের পায়ে ধরেন। কান্নাজড়িত কণ্ঠে বড় ভাই ডেকে মিনতিও করেন ওই তরুণী। তবু তাদের মন গলেনি। উল্টো তারা তরুণীর পরনের বোরকা খোলার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে তরুণীর মুখে চুমু দেন রহিম।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর