১১ বছর ধরে অভিভাবকহীন ফেনী বিএনপি

১১ বছর ধরে অভিভাবকহীন ফেনী বিএনপি

ফেনী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৩৯ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৬:২১ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ফেনীর অধিকাংশ উপজেলা, পৌরসভা, ইউপি, ওয়ার্ডে বিএনপির কোনো কমিটি নেই। সম্মেলন না হওয়ায় নতুন নেতৃত্ব তৈরি হয়নি। ১১ বছরের বেশি সময় ধরে অভিভাবকহীন হয়ে আছে জেলা বিএনপি। সাংগঠনিক কার্যক্রম না থাকায় ফেনীতে ভিত হারাতে বসেছে দলটি।

জানা গেছে, ২০০৯ সালে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সাঈদ এস্কান্দারকে সভাপতি ও জিয়াউদ্দিন আহমেদ মিস্টারকে সাধারণ সম্পাদক করে ফেনী জেলা বিএনপির  সর্বশেষ কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ওই সময় ৬টি উপজেলা, ৫টি পৌরসভা, ৪৩টি ইউপি ও ওয়ার্ড পর্যায়েও কমিটি দেয়া হয়। পরবর্তীতে সাঈদ এস্কান্দারের মৃত্যুতে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হন অ্যাডভোকেট আবু তাহের। এরপরই অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জড়িয়ে পড়েন নেতা-কর্মীরা, একাধিক গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়ে ফেনী বিএনপি। সাংগঠনিক কার্যক্রম ঝিমিয়ে পড়ায় দেখা দেয় নেতৃত্ব শূন্যতা।

আরো জানা গেছে, দলীয় কোন্দল চরমে পৌঁছানোয় বিভিন্ন সময়ে উদ্যোগ নিয়েও কমিটি গঠন করা যায়নি। ২০১৯ সালের ২ অক্টোবর শেখ ফরিদ বাহারকে আহ্বায়ক ও আলাল উদ্দিন আলালকে সদস্য সচিব করে ৪১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপরও ঐক্যবদ্ধ করা যায়নি দল বিমুখ নেতা-কর্মীদের।

ফেনী সদর উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব আমান উদ্দিন কায়সার সাব্বির জানান, ফেনী বিএনপির রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু সদর উপজেলা ও পৌরসভায়। কিন্তু সিনিয়র নেতারা দল বিমুখ হয়ে পড়ায় এখানেই গতি হারিয়ে গেছে। বারবার সম্মেলন-কমিটি গঠনের উদ্যোগ নিয়েও সফল হওয়া যায়নি।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলাল জানান, ফেনীতে বিএনপিকে ঢেলে সাজাতে তৃণমূল পর্যায়ে সম্মেলনের নির্দেশনা দিয়েছে হাইকমান্ড। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। সবগুলো ইউপি, পৌরসভা ও উপজেলায় সম্মেলন করা হবে। অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে কেউ যেন বাদ না যায় সেজন্য মনিটরিং টিম গঠন করা হয়েছে।

ফেনী বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ বাহার জানান, সম্মেলনের মাধ্যমে ত্যাগী, দক্ষ ও অভিজ্ঞ নেতা-কর্মীদের সমন্বয়ে নতুন কমিটি গঠন করা হবে। ফেনীতে বিএনপিকে পুনরায় শক্তিশালী করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/এইচএন