প্রথম স্ত্রীর যৌতুক মামলায় গ্রেফতার পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক

প্রথম স্ত্রীর যৌতুক মামলায় গ্রেফতার পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক

পিরোজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:১৫ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৫:৩৫ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এম ডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেল

পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এম ডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেল

প্রথম স্ত্রীর করা যৌতুক ও নির্যাতন মামলায় পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এম ডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার সকালে জেলার হুলারহাট লঞ্চঘাট থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান জেলা সদর থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল।

রুবেলের প্রথম স্ত্রী শেখ সাজিয়া আফরিন শাম্মী জানান, ২০১২ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি পারিবারিকভাবে রুবেলের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। দেড় বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে তাদের। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক হিসেবে বিভিন্ন সময় নগদ টাকা, আসবারপত্র ও মোটরসাইকেল দেয়া হয়েছে। এরপরও রুবেল ও তার মা জাকিয়া বেগম ২৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে নানাভাবে চাপ দেয়। 

তিনি জানান, যৌতুকের টাকা না দিতে না পারায় তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে। যৌতুক আনতে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় স্বামী ও শ্বাশুড়ি। পারিবারিকভাবে সমঝোতার চেষ্টা করলেও তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন মেনে নেয়নি। এরপর ১৫ জুলাই খুলনা আদালতে স্বামী ও শ্বাশুড়িকে আসামি করে যৌতুক ও নির্যাতন মামলা দায়ের করেন তিনি।

শেখ সাজিয়া আফরিন শাম্মী আরো জানান, অধিক যৌতুকের লোভে তার অনুমতি না নিয়ে যশোর এলাকার একটি মেয়েকে বিয়ে করে রুবেল। জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার কারণে এ বিষয়ে কিছু বলতে গেলে রুবেল নানাভাবে হুমকি দেয়।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি নুরুল ইসলাম বাদল জানান, স্ত্রীর করা মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকায় জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রুবেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে