আন্দোলনে ব্যর্থ হলেও নিজেদের সংঘাতে চাঙ্গা পাবনা বিএনপি

আন্দোলনে ব্যর্থ হলেও নিজেদের সংঘাতে চাঙ্গা পাবনা বিএনপি

পাবনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:০২ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৩:৫৮ ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আন্দোলনে ব্যর্থ হলেও নিজেদের মধ্যে সংঘাত-মারামারিতে বেশ চাঙ্গা থাকছে বিএনপি। কমিটি গঠন থেকে শুরু করে নির্বাচন ও মনোনয়নসহ বিভিন্ন ইস্যুতে দলটির নেতা-কর্মীরা হরহামেশাই নিজেদের মধ্যে মারামারিতে লিপ্ত হচ্ছেন।

সর্বশেষ গতকাল সোমবার পাবনার ঈশ্বরদী বাসস্ট্যান্ডে সভা শেষে দলীয় প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের বাড়িতে খেতে যান বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা। এ সময় কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনে বসা ও আগে খাওয়া নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতা আমান উল্লাহ আমান, খায়রুল কবির খোকন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদারের সামনেই কথা কাটাকাটি এবং সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক হিমেল রানা ও ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তসলিম হাসান সুইটের সমর্থকরা।

সংঘর্ষের এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাত আহত হন জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক হিমেল রানা, যুগ্ন সম্পাদক সাব্বির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সম্পাদক রানা মিয়াসহ অন্তত ১৫ জন।

এ বিষয়ে ঈশ্বরদী থানার ওসি শেখ নাসির উদ্দিন বলেন, খাওয়া-দাওয়া নিয়ে বিএনপির দু’পক্ষের সংঘর্ষের কথা শুনেছি। কোনো পক্ষ আমাদের কাছে অভিযোগ করেনি তবে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশি নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

জানতে চাইলে আহত যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা বলেন, কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলার জন্য আমরা হাবিবুর রহমান হাবিবের বাড়িতে অপেক্ষায় ছিলাম। হঠাৎ করে ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তসলিম হাসান সুইটের নেতৃত্বে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা আমাদের উপর হামলা করে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমিসহ যুবদল নেতা-কর্মীদের উপর হত্যার উদ্দেশ্যে ছুরিকাঘাত করে।

এ বিষয়ে ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তসলিম হাসান সুইট বলেন, যুবদল নেতারা প্রথম থেকেই নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন না। আমরা দিন-রাত পরিশ্রম করে মাঠ গুছিয়ে নিয়েছি। কেন্দ্রীয় নেতাদের বিব্রত করতে অহেতুক তারা অস্থিরতা সৃষ্টি করছে। এসময় তিনি হামলার ঘটনায় নিজের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, সংঘর্ষের ঘটনা নির্বাচন কেন্দ্রিক নয়। যুবদল ও সাবেক ছাত্রদল নেতা-কর্মীদের মধ্যে একটু ভুল বুঝাবুঝি হয়েছিল। এটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা, বড় করে দেখার মতো কিছু নয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এইচএন