১৫ বছর ধরে অচলাবস্থা নেত্রকোনা বিএনপিতে

১৫ বছর ধরে অচলাবস্থা নেত্রকোনা বিএনপিতে

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৩৪ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৫:০৩ ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

নেতৃত্ব শূন্যতায় বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে নেত্রকোনা বিএনপির সাংগঠনিক ভিত। দলের ভেতরে সৃষ্টি হয়েছে কোন্দল, বিভক্ত হয়ে পড়েছেন নেতা-কর্মীরা। ১৫ বছর ধরে রাজনৈতিক মাঠ থেকে এক প্রকার দূরে সরে আছে দলটি।

তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা জানান, নেতৃত্ব শূন্যতা আর অভ্যন্তরীণ কোন্দলে খুবই খারাপ অবস্থা নেত্রকোনা জেলা বিএনপির। এর প্রভাব পড়েছে বিভিন্ন উপজেলা ও ইউপি কমিটিতে। এ অবস্থা কাটিয়ে পুনরায় অবস্থান ফিরে পেতে প্রয়োজন বলিষ্ঠ নেতৃত্ব।

জেলা বিএনপির একাংশের নেতা-কর্মীরা জানান, সর্বশেষ ২০১৪ সালে জেলা বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সেই কমিটি এখনো চলছে। তিন বছরের মেয়াদ বহু আগেই শেষ হয়েছে। তবু বাতিল ঘোষণা করা হয়নি, গঠিত হয়নি নতুন কমিটি। সাত বছর পর ডা. মো. আনোয়ারুল হক ও ড. রফিকুল ইসলাম হিলালীর নেতৃত্বে আহ্বায়ক কমিটি গঠিত হলেও অজ্ঞাত কারণে থেমে আছে বাকি প্রক্রিয়া। এর জন্য জেলার নেতা-কর্মীদের বিভক্ত হয়ে যাওয়াকেই দায়ী করছেন অনেকে। শুধু নেত্রকোনো বিএনপি নয়, একই অবস্থা দলটির অঙ্গ সংগঠনগুলোরও।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিএনপি নেতার অভিযোগ, কমিটি গঠন নিয়ে নেত্রকোনা বিএনপিতে রয়েছে নানা টালবাহানা। রাজনীতির মাঠে সক্রিয় নেতারা স্থান পান না কমিটিতে। পকেট ভারী কিছু নেতার দখলে চলে যায় পুরো কমিটি। এ কারণে তৃণমূলের সক্রিয় নেতা-কর্মীরা দলবিমুখ হয়ে পড়েছেন। দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে ত্যাগী ও তরুণদের অগ্রাধিকার দিতে হবে। নইলে অদূর ভবিষ্যতে রাজনীতির মাঠে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখাই মুশকিল হবে।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব ড. রফিকুল ইসলাম হিলালী বলেন, দলকে ব্যবহার করে কিছু নেতা আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়েছেন। নামধারী কিছু নেতা নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য নানাভাবে দল ও ত্যাগী নেতা-কর্মীদের ব্যবহার করছেন। এখন দলের দুর্দিনে সেসব নেতা সটকে পড়েছেন। এ কারণে সাংগঠনিক কোনো কার্যক্রম নেই নেত্রকোনা বিএনপিতে।

নেত্রকোনা বিএনপির আহ্বায়ক ডা. মো. আনোয়ারুল হক বলেন, জেলা বিএনপিকে পুনরায় সংগঠিত করতে আমরা এরইমধ্যে বেশ কিছু কার্যক্রম হাতে নিয়েছি। করোনা মহামারিতে পুরো জেলার অসহায় ও দরিদ্রদের পাশে ছিলাম। বর্তমানে দলের দুঃসময় চলছে। কিন্তু অনেক নেতা-কর্মী মাঠে নেই। তাদের ফিরিয়ে এনে দলকে নতুন করে গোছানোর চেষ্টা করছি। আশাকরি, দ্রুত সুদিন ফিরবে নেত্রকোনা বিএনপিতে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/এইচএন