কালকিনিতে ত্রাণ বিতরণ নিয়েও বিএনপির কাড়াকাড়ি

কালকিনিতে ত্রাণ বিতরণ নিয়েও বিএনপির কাড়াকাড়ি

মাদারীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:৪৮ ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৪:৫৮ ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

করোনা মহামারিতে মাদারীপুরের কালকিনিতে ত্রাণ বিতরণ নিয়েও কাড়াকাড়ি করেছেন বিএনপি নেতারা। কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা ও কালকিনির বাসিন্দা আনিসুর রহমান তালুকদার খোকনের ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি পণ্ড করতে পাল্টা কর্মসূচি দিয়েছেন কালকিনি উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. ফজলুল হক ব্যাপারী। এ নিয়ে দলীয় কোন্দলের কারণে ত্রাণ বঞ্চিত হয়েছে ঘরবন্দি মানুষ।

জানা গেছে, চলতি বছরে করোনা মহামারিতে কালকিনির ঘরবন্দি মানুষের জন্য ত্রাণ সহায়তার উদ্যোগ নিয়েছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আনিসুর রহমান তালুকদার। পাঁচশ মানুষকে ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ সহায়তা দিতে নিজ এলাকায় যান তিনি। ওই মুহূর্তে প্রায় অর্ধশত কর্মী-সমর্থক নিয়ে বাধা দেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. ফজলুল হক ব্যাপারী। একই সময় একই স্থানে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি দেন তিনিও।

এ নিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে পণ্ড হয় ত্রাণ তৎপরতা। বঞ্চিত হয় মহামারিতে ঘরবন্দি লাখো মানুষ। এমন কর্মকাণ্ডে পুরো জেলায় সমালোচিত হচ্ছে উপজেলা বিএনপি। হারাচ্ছে জনসমর্থনও।

কালকিনি উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. মাহাবুব মুন্সি বলেন, এমনিতেই জেলা কমিটির কার্যক্রম স্থগিত রয়েছে। এর মধ্যে আবার কেন্দ্রীয় কমিটির অনুমোদন ছাড়াই আহ্বায়ক কমিটি গঠন করেছেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মো. জাফর আলী মিয়া। এ নিয়ে তার সঙ্গে দ্বন্দ্ব চলছে জেলা বিএনপির সদস্য সচিব জাহান্দার আলী জাহানের। তারপর ত্রাণ বিতরণ নিয়ে ঝামেলা শুরু হয়েছে। চারদিক থেকে কোন্দলে জর্জরিত হয়ে পড়েছে মাদারীপুর বিএনপি। এ সমস্যার সমাধান না করলে এ জেলায় বিএনপির অস্তিত্ব হুমকির মুখে পড়বে।

কালকিনি উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মো. ওয়াহিদুল ইসলাম আব্দুল হাই বলেন, খোকন ভাই (আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন) ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ করতে আসায় বিষয়টি পছন্দ হয়নি উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. ফজলুল হক ব্যাপারীর। এ কারণে তিনি তার সমর্থকদের নিয়ে খোকন ভাইয়ের কর্মসূচি পণ্ড করে দেন। এতে উপজেলা বিএনপির প্রতি মানুষের আস্থা কমেছে।

কালকিনি পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. কামাল হোসেন বলেন, কালকিনিতে করোনা মহামারিতে জনগণের পাশাপাশি দলের অনেক কর্মী আর্থিকভাবে দুরবস্থায় পড়েছেন। ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের পাশে না দাঁড়িয়ে নিজেদের মধ্যেই দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন ও ফজলুল হক ব্যাপারী। এতে অসহায় মানুষগুলো ত্রাণ বঞ্চিত হয়েছে। জনসমর্থন হারিয়েছে উপজেলা বিএনপি।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. ফজলুল হক ব্যাপারী বলেন, নিজেদের মধ্যে কোনো দ্বন্দ্ব নেই। উপজেলা বিএনপির আগে থেকেই ওই স্থানে ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি ঠিক করা ছিল। আনিসুর রহমান তালুকদারকেও দলীয়ভাবে ত্রাণ দিতে বলা হয়েছিল। এ নিয়ে তার সঙ্গে কিছুটা বাকবিতণ্ডা হয়েছে। এর বেশি কিছু না।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন বলেন, মাদারীপুর বিএনপিতে এমনিতেই ত্যাগী নেতা-কর্মীরা অবহেলিত। কালকিনির ওই ঘটনা তরুণ নেতা-কর্মীদের মাঝে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। আমি সবসময় মাদারীপুরে বিএনপিকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে কাজ করি। ত্রাণ বিতরণের সময়ও অসংখ্য নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিল। তারা দেখেছে ফজলুল হক ব্যাপারী কীভাবে পদের সুবিধা নিতে চেয়েছেন। আমি বিষয়টি হাইকমান্ডকে জানিয়েছি। আশা করি, হাইকমান্ড সঠিক সমাধান দেবে ও সঠিক নেতৃত্ব নির্বাচন করবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর/এইচএন