বাবার চিকিৎসার খরচ নিয়ে পালালো মেয়ে, ধরিয়ে দিতে বিজ্ঞাপন

বাবার চিকিৎসার খরচ নিয়ে পালালো মেয়ে, ধরিয়ে দিতে বিজ্ঞাপন

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:১০ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৭:২৯ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

মেয়েকে ধরিয়ে দিতে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন, পুরস্কার ঘোষণা বাবার

মেয়েকে ধরিয়ে দিতে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন, পুরস্কার ঘোষণা বাবার

মেয়েকে লালন-পালন করে বড় করেছেন বাবা। সেই মেয়েই কিনা জীবনের পড়ন্ত সময়ের চিকিৎসার টাকার লোভে বাবার বুকে প্রতারণার ছুরি বসিয়ে দিল। তাই বাধ্য হয়ে মেয়েকে ধরিয়ে দিতে জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়েছেন বাবা। মেয়েকে কেউ ধরিয়ে দিতে পারলে পুরস্কার দেবেন বলে বিজ্ঞাপনে উল্লেখ করেছেন বাবা।

শুক্রবার মেয়ের ছবিসহ পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেন বাবা আবদুল মান্নান। তিনি টাঙ্গাইলের সখীপুরের ঘেচুয়া গ্রামের বাসিন্দা। তার চার মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। 

এর আগে গত বুধবার মেয়ের বিরুদ্ধে সখীপুর থানায় প্রতারণার অভিযোগ করেন বাবা আবদুল মান্নান। 

তিনি অভিযোগপত্রে জানান, পেশায় ঘোড়ার গাড়ির চালক আবদুল মান্নান নানা রোগে ভুগছেন। ফলে বছরখানেক আগে থেকে তিনি গাড়ি চালাতে পারছেন না। সম্প্রতি নানা রোগের চিকিৎসার জন্য পাঁচ লাখ টাকায় নিজের বাড়ি বিক্রি করেন আবদুল মান্নান। গত ৯ সেপ্টেম্বর তার ছোট মেয়ে চায়না আক্তারকে সঙ্গে নিয়ে চিকিৎসার ওই পাঁচ লাখ টাকা ব্যাংকে জমা রাখতে যান তিনি। 

উপজেলার নলুয়া বাজারে অবস্থিত ব্যাংকে যাওয়ার পর বাবা আব্দুল মান্নানকে বসিয়ে রেখে স্বামীর যোগসাজশে টাকা নিয়ে চম্পট দেন মেয়ে চায়না। পরে মেয়ে ও জামাতার বাড়িতে গিয়েও তাদের খোঁজ পাননি তিনি। অবশেষে ১৬ সেপ্টেম্বর সখীপুর থানায় মেয়ের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ করেন আব্দুল মান্নান।

এদিকে শুক্রবার একটি জাতীয় দৈনিকে মেয়ের ছবিসহ ‘ধরিয়ে দিন, পুরস্কার দেওয়া হবে’ শিরোনামে একটি বিজ্ঞাপন ছাপান আবদুল মান্নান। 

তিনি বলেন, এ টাকা না পেলে চিকিৎসা ছাড়া ধুঁকে ধুঁকে আমি মরে যাব। মেয়েকে যে কেউ ধরিয়ে দিলে তাকে উপযুক্ত পুরস্কার দেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ