অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর হাত-পা ভেঙে দিলেন নেশাগ্রস্ত স্বামী

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর হাত-পা ভেঙে দিলেন নেশাগ্রস্ত স্বামী

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:১৯ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  

স্বামীর নির্যাতনে আহত পারভিন আক্তার

স্বামীর নির্যাতনে আহত পারভিন আক্তার

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে রড দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিয়েছেন নেশাগ্রস্ত স্বামী। শুক্রবার রাতে জেলার সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউপির পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর অভিযুক্ত স্বামী নুর ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। আটক নুর ইসলাম জেলার সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউপির পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার দারাজ উদ্দীনের ছেলে। তার স্ত্রী পারভিন আক্তার জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়বাড়ী ইউপির মালঞ্চা গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে।

আহত পারভিনের বাবা শফিকুল ইসলাম বলেন, নুর ইসলামের সঙ্গে আমার মেয়ের আট মাস আগে বিয়ে দিই। বর্তমানে আমার মেয়ে ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা। বৃহস্পতিবার বিকেলে পারভিন আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে পরদিন শুক্রবার বিকেলে স্বামীর বাড়িতে ফিরে যায়।

এরপর নুর ইসলাম নেশা করে বাড়ি ফিরে পারভিনকে গালাগাল করে। পারভিন এর প্রতিবাদ করলে নুর ইসলাম মারধর শুরু করেন। একপর্যায়ে ঘরে থাকা রড বের করে পিটিয়ে পারভিনের দুই হাত ও দুই পা ভেঙে দেয়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহত পারভিন আক্তার বলেন, আমার স্বামী রড দিয়ে পিটিয়ে আমার দুই হাত ও দুই পা ভেঙে দিয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের চিকিৎসক সাকিব ইবনে আব্দুল্লাহ বলেন, পারভিনের দুই হাত ও দুই পা ভেঙে গেছে। হাসপাতালে ভর্তির পর তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
 
ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম বলেন, নুর ইসলামকে আটক করা হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য পারভিনকে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ