ফুটবলে বিবাহিতদের হারালেন অবিবাহিতরা, জিতলেন খাসি

ফুটবলে বিবাহিতদের হারালেন অবিবাহিতরা, জিতলেন খাসি

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:০৬ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  

বিজয়ী দলের হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে খাসি

বিজয়ী দলের হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে খাসি

সুযোগ পেলেই গ্রামবাংলা মেতে উঠে ফুটবল খেলার উন্মাদনায়। শুক্রবার বিকেলে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠের প্রীতি ফুটবল ম্যাচটি আবারো তা প্রমাণ করল। প্রচণ্ড উচ্ছ্বাস নিয়ে প্রীতি এ ম্যাচ উপভোগ করেন স্থানীয় দর্শকরা। 

ম্যাচটিকে প্রাণবন্ত করে তোলেন অংশগ্রহণকারী দুটি দল। ম্যাচটির নাম দেয়া হয় ‘ছাগল কাপ’ ফুটবল ম্যাচ। এতে অংশ নেন বিবাহিত বনাম অবিবাহিতরা। খেলার নির্ধারিত সময় ছিল একঘণ্টা।

খেলায় বিবাহিত একাদশকে ২-১ গোলে হারায় অবিবাহিত একাদশ। খেলায় শেষে বিজয়ী দলের হাতে পুরস্কার হিসেবে তুলে দেয়া হয় একটি খাসি।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, খেলার একদিন আগে দিনব্যাপী এলাকায় মাইকিং করে ‘ছাগল কাপ’ ফুটবল ম্যাচ উপভোগের জন্য দর্শকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। মশিন্দা ইউপির এক নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. রেজাউল করিম এ ফুটবল ম্যাচের উদ্যোক্তা ছিলেন। খেলার মাঠে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এলাকার ক্রীড়ামোদী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আবদুস সালাম, রতন শেখ, মিল্টন মোল্লা ও হানিফ প্রামাণিক।

স্থানীয় ইউপি সদস্য রেজাউল করিম বলেন, খেলাটি উপভোগ্য করতে ও খেলোয়াড়দের বাড়তি বিনোদন দিতে পুরস্কার হিসেবে একটি খাসি রাখা হয়। খেলোয়াড়দের চাঁদার ১১ হাজার টাকায় কেনা হয় খাসিটি। খেলা শেষে খাসিটি জবাই করে রাতেই ‘খিচুড়ি ভোজ’ করা হয় স্থানীয় মশিন্দা বাজারে। খেলোয়াড় ছাড়াও এলাকার শতাধিক মানুষ এ ভোজে অংশ নেন।

স্থানীয় শিক্ষক আবদুস সালাম বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে বেশ কয়েক মাস ধরে মাঠে ফুটবল খেলা হয়নি। গ্রামের অপেশাদার খেলোয়াড়দের এ ফুটবল খেলাকে ঘিরে এলাকার মানুষের আগ্রহের কমতি ছিল না। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ