৯ বছরে ৯ বিয়ে, উঠতি বয়সের মেয়েরাই তার টার্গেট

৯ বছরে ৯ বিয়ে, উঠতি বয়সের মেয়েরাই তার টার্গেট

চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৪৭ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  

অভিযুক্ত যুবক মোহাম্মদ সোলায়মান

অভিযুক্ত যুবক মোহাম্মদ সোলায়মান

বরিশালের বরগুনা উপজেলার বাসিন্দা মোহাম্মদ সোলায়মান। ১৭ বছর বয়সে জীবিকার তাগিদে আসেন চট্টগ্রামে। কাজ নেন নগরীর একটি পোশাক কারখানায়। পেশায় পোশাক শ্রমিক হলেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও মোবাইল ফোনে নারীদের প্রথমে প্রেম ও পরে বিয়ের নামে প্রতারণার ফাঁদে ফেলার এক অভিনব শিল্প রপ্ত করেন সোলায়মান।

তার টার্গেট পোশাক কারখানায় কাজ করা নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়েরা। নিজেকে কখনো পুলিশ কর্মকর্তা, কখনো সেনা কর্মকর্তা, কখনো আবার নৌ বাহিনীর কর্মকর্তা হিসেবে উপস্থাপন করতেন সোলায়মান। বিশ্বাস করাতে মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে বিভিন্ন কর্মকর্তাদের ছবিতে নিজের চেহারা বসিয়ে পাঠাতেন প্রেমিকার কাছে। আর এতেই কুপোকাত প্রেমিকা ও তাদের পরিবার।

শুধু তাই নয়, বিয়ের পর স্ত্রীর ভাই-বোনদের চাকরি দেয়ার নামে হাতিয়ে নিয়েছেন বিপুল অর্থ। স্ত্রীদের মাধ্যমে বিভিন্ন এনজিও থেকে নিয়েছেন ঋণ। পরে ওই অর্থ নিয়ে নতুন শিকারের খোঁজে পালিয়ে গেছেন অন্যত্র। এভাবে একটি কিংবা দুটি নয়, ২৯ বছরের মধ্যে মাত্র ৯ বছরে ৯টি বিয়ে করে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন সোলায়মান।

কিন্তু এবার আর শেষ রক্ষা হলো না তার। অভিযোগ পেয়ে নগরীর পাহাড়তলী থানা এলাকার একটি বাসা থেকে প্রতারণার সুনিপুণ কারিগর সোলায়মানকে গ্রেফতার করেছে নগর গোয়েন্দা ও পাহাড়তলী থানা পুলিশের যৌথ দল।

পাহাড়তলী থানার ওসি মঈনুল ইসলাম বলেন, উঠতি বয়সের মেয়েদেরকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে বিয়ে করা ও অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে সোলায়মানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে সোলায়মান প্রতারণার কথা স্বীকার করেছেন।

ওসি আরো বলেন, প্রতারণার মাধ্যমে অষ্টম স্ত্রী রাহেলার কাছ থেকে তিন লাখ টাকা ও নবম স্ত্রী রহিমার কাছ থেকে যৌতুক বাবদ দুই লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে সোলায়মানের বিরুদ্ধে। এরইমধ্যে রহিমা আক্তারের মা বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ