বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ি গিয়ে পিটুনি খেয়ে হাসপাতালে প্রেমিকা

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ি গিয়ে পিটুনি খেয়ে হাসপাতালে প্রেমিকা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:০৬ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০  

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ি গিয়ে পিটুনি খেয়ে হাসপাতালে প্রেমিকা

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ি গিয়ে পিটুনি খেয়ে হাসপাতালে প্রেমিকা

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবি জানিয়ে বিপদে পড়েছেন এক প্রেমিকা। প্রেমিকের স্বজনদের পিটুনিতেই আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

গত বুধবার রাতে উপজেলার ধলহরাচন্দ্র ইউপির খাস বগদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ঢাকায় একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন খাস বকদিয়া গ্রামের ওই তরুণী। একই গ্রামের জিহাদের ছেলে জিকু পোশাক কারখানায় কাজ করার উদ্দেশে ঢাকায় যান। ঢাকায় যাওয়ার পর ওই তরুণীর ভাড়া বাসায় ওঠেন জিকু। এতে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

ওই তরুণীর বাবার দাবি, সম্প্রতি তার মেয়েকে বিয়ে করতে প্রস্তুতি নেয়ার কথা জানায় জিকু। সেই কথা মাকেও জানায় মেয়ে। কিছুদিন পর মেয়ে বিয়ের কথা বললে জিকু টলবাহানা শুরু করে। অতঃপর জিকু ঢাকা থেকে পালিয়ে শৈলকুপা চলে আসে। উপায় না দেখে তার মেয়েও ঢাকা থেকে বাড়িতে ফিরে আসে।

গত বুধবার রাতে জিকুর পরিবারের সদস্যদের কাছে সবকিছু খুলে বলতে যায় মেয়ে। কিন্তু বিষয়টি পাত্তা না দিয়ে জিকুর স্বজনরা উল্টো মেয়েকে পিটুনি দেয়। এতে মেয়ে আহত হলে তাকে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

অভিযুক্ত জিকুর মা শরিফা খাতুন বলেন, আমার ছেলেকে ফাঁসানোর চক্রান্ত চলছে। আমার ছেলে নির্দোষ।

শৈলকুপা থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, এক তরুণী জিকু নামের যুবককে নিজের প্রেমিক দাবি করেছে। কথিত প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে স্বজনদের হাতে প্রহারের শিকার হয়েছেন। তাই থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ