সাত দেশ থেকে আসছে ৭৯ হাজার টন পেঁয়াজ

সাত দেশ থেকে আসছে ৭৯ হাজার টন পেঁয়াজ

চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৪:১২ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৭:৪১ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

পেঁয়াজ (ফাইল ছবি)

পেঁয়াজ (ফাইল ছবি)

ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হওয়ায় চট্টগ্রাম বন্দরে সাত দেশ থেকে আসছে ৭৯ হাজার ৩৯০ টন পেঁয়াজ। যার বিপরীতে ২১৭টি আমদানি অনুমতিপত্র ইস্যু করেছে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের উদ্ভিদ সংঘনিরোধ কেন্দ্র।

আমদানির জন্য বাছাই করা দেশগুলো হলো- চীন, মিয়ানমার, পাকিস্তান, মিশর, তুরস্ক, নেদারল্যান্ডস ও নিউজিল্যান্ড।

চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের উদ্ভিদ সংঘনিরোধ কেন্দ্রের উপ-পরিচালক আসাদুজ্জামান বুলবুল বলেন, আবেদন পেয়ে স্বল্প সময়ের মধ্যে অনুমতিপত্র দেয়া হচ্ছে, যেন দ্রুত আমদানি সম্ভব হয়। বৃহস্পতিবার নতুন করে ৬৭টি আমদানি অনুমতিপত্র ইস্যু করা হয়েছে। সব মিলিয়ে ৩ সেপ্টেম্বর থেকে এ পর্যন্ত ২১৭টি অনুমতিপত্র ইস্যু করা হয়েছে। যার বিপরীতে দেশে আসবে ৭৯ হাজার ৩৯০ টন পেঁয়াজ।

জানা গেছে, ভারতের রফতানি বন্ধের বিষয়টি আঁচ করতে পেরে আগে থেকেই বিকল্প দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির প্রক্রিয়া শুরু করেন ব্যবসায়ীরা।

আরো পড়ুন: পায়ুপথে বাতাস দিয়ে সহকর্মীকে হত্যা, অভিযুক্ত চারজন আটক

এক আমদানিকারক বলেন, চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীরা আদা-রসুন আমদানি করলেও পেঁয়াজের ব্যবসাটা ভারতের স্থলবন্দর কেন্দ্রিক আমদানিকারক ও বেপারিরা নিয়ন্ত্রণ করেন। যার ফলে ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিলে বাংলাদেশে সংকট দেখা দেয়। তবে এবার বিকল্প পথে হাঁটছে ব্যবসায়ীরা।

তিনি আরো বলেন, পেঁয়াজ পচনশীল পণ্য। তাই পচন এড়াতে রেফার কনটেইনারে আনার চেষ্টা চলছে। এছাড়া পরিমাণ বেশি হলে হিমাগার সুবিধাযুক্ত কার্গো জাহাজে করে আনা হবে। সবকিছু ঠিক থাকলে চাহিদা অনুযায়ী পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রাখা সম্ভব হবে।  

এর আগে, সোমবার পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই বেনাপোলসহ দেশের বিভিন্ন স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয় ভারত। পরে ওই রাতেই আনুষ্ঠানিকভাবে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের ঘোষণা দেয় দেশটি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম/টিআরএইচ/এমআরকে