হাতে অস্ত্র-মুখে মাদক, কিশোররাই গড়ে তুলেছে টর্চার সেল

হাতে অস্ত্র-মুখে মাদক, কিশোররাই গড়ে তুলেছে টর্চার সেল

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:০৭ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ২০:৩৪ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

এরা কিশোর গ্যাং এর সদস্য। কারো হাতে অস্ত্র, কারো মুখে মাদক। কেউ আবার টরচার সেলে প্রতিপক্ষের কিশোরদের নির্যাতনে ব্যস্ত

এরা কিশোর গ্যাং এর সদস্য। কারো হাতে অস্ত্র, কারো মুখে মাদক। কেউ আবার টরচার সেলে প্রতিপক্ষের কিশোরদের নির্যাতনে ব্যস্ত

কারো হাতে অস্ত্র, কারো মুখে মাদক। পুরো ঘর ভর্তি দেশীয় অস্ত্র। প্রতিপক্ষের কিশোরদের এনে হাত-পা বেঁধে নিজেদের গড়ে তোলা টর্চার সেলে ঢুকিয়ে মারধর করা তো নিয়মিত দৃশ্য। এ যেন বাংলা সিনেমার চিরায়িত রূপ। তবে এসব গল্প সিনেমার দৃশ্য নয়, এগুলোই আজকাল কিশোরদের গ্যাং কালচারের অন্যতম রুটিন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকা থেকে এমনই এক কিশোর গ্যাংয়ের নেতাসহ পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। তারা হলেন- মো. আমিনুল ইসলাম ওরফে শাহিন, মো. সাদেক হোসেন, শ্রাবণ আকন, মো. ইয়াসিন আহম্মেদ ওরফে জুনায়েদ, মো. আশিকুর রহমান শিকদার ওরফে শাকিব।

আরো পড়ুন: ৬ মেয়ে হওয়ায় ছেড়ে গেছেন বাবা, কলেজে ভর্তি নিয়ে আশঙ্কায় দুইবোন

বুধবার রাতে বন্দর থানার কেওঢালা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে র‍্যাব। এ সময় দুটি চাইনিজ কুড়াল, দুটি চাকু, দুটি ছুরি, একটি রামদা, একটি তলোয়ার, একটি পিস্তলের কভার, একটি হাসুয়া, ৩০০টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকা থেকে গ্রেফতার হওয়া কিশোর গ্যাংয়ের পাঁচ সদস্য ও উদ্ধার হওয়া অস্ত্র-মাদক

আরো পড়ুন: বাজারে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

বৃহস্পতিবার বিকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১ এর এডিশনাল এসপি মো. জসিম উদ্দিন চৌধুরী।

তিনি জানান, গ্রেফতাররা পেশাদার সন্ত্রাসী, অপহরণকারী ও চাঁদাবাজ চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা দীর্ঘদিন ধরে সংঘবদ্ধভাবে চাঁদাবাজি, অপহরণ, মুক্তিপণ আদায়, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালাচ্ছিল। বুধবার গভীর রাতে বন্দর থানার কেওঢালা এলাকা থেকে সংঘবদ্ধ অবস্থায় চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

এডিশনাল এসপি জসিম জানান, গ্রেফতার আমিনুল ইসলাম ওরফে শাহিনের নেতৃত্বে একটি কিশোর গ্যাং মদনপুর এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালাচ্ছিলো। শাহিনের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে।

আরো পড়ুন: প্রেমিকার বাসায় ডেকে নিয়ে প্রেমিককে পুড়িয়ে হত্যা!

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর