‘পুলিৎজার জয়ী’ সাংবাদিক দানিশের চোখে বিশ্ব 

‘পুলিৎজার জয়ী’ সাংবাদিক দানিশের চোখে বিশ্ব 

সাতরঙ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:২৩ ১৮ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১১:২৬ ১৮ জুলাই ২০২১

রোহিঙ্গা উদ্বাস্তু এক নারী সমুদ্রতট ছুঁয়ে দেখছেন। মর্মস্পর্শী এই মুহূর্তকে ক্যামেরায় ধরেছিলেন দানিশ। এই ছবির জন্য দানিশ পেয়েছিলেন পুলিৎজার। 

রোহিঙ্গা উদ্বাস্তু এক নারী সমুদ্রতট ছুঁয়ে দেখছেন। মর্মস্পর্শী এই মুহূর্তকে ক্যামেরায় ধরেছিলেন দানিশ। এই ছবির জন্য দানিশ পেয়েছিলেন পুলিৎজার। 

‘ছবি কথা বলে’।  ছবি শুধু আবেগ উদ্রেককারী নয়, ছবি সময়কে বন্দি করে। ছবি ফেলে আসা সময়ের কথা বলে। সে কথা শোনা যায় না, চোখ দিয়ে বুঝতে হয়। দানিশ সিদ্দিকীর ফ্রেমবন্দি এসব ছবি দেখলেই সেই মর্মার্থ বোঝা যায়। 

পুলিৎজার বিজয়ী রয়টার্সের ফটোসাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকী, দায়িত্ব পালনরত অবস্থাতেই মারা যান তিনি। সে সময় আফগান নিরাপত্তা বাহিনী ও তালেবানের সংঘর্ষের ছবি তোলায় ব্যস্ত ছিলেন তিনি। রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, এ সপ্তাহের শুরু থেকেই এ কাজে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে আফগানিস্তানের কান্দাহারে অবস্থান করছিলেন তিনি। 

দানিশ একবার বলেছিলেন, ব্রেকিং স্টোরি জন্ম নেওয়ার মুহূর্তে মানুষের মুখাবয়বের স্থিরচিত্র ধারণ করার কাজটিই তার সবচেয়ে পছন্দের। তার কাজেও এর প্রমাণ মেলে। ভারত থেকে শুরু করে উত্তর কোরিয়া- তার ক্যামেরায় বন্দি করেছেন বিশ্বের নানা প্রান্তের মানবিক অনুভূতি। মানেন নি কোনো বাঁধা। কখনও ফ্রেমবন্দি হয়েছে নেপালের ভূমিকম্প, কখনও দিল্লির দাঙ্গা, হংকংয়ের প্রতিবাদ। কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে চিতা জ্বলার ছবিও উঠে এসেছে তার ক্যামেরায়।  

চলুন আজ দানিশের চোখে পৃথিবীকে একবার দেখে নেয়া যাক- 

 করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতে মৃত্যুমিছিল শুরু হয়। গণচিতা জ্বলছিল। তেমনই এক হাড়হিম করা ছবি তুলেছিলেন দানিশ সিদ্দিকি।

মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয়ের আশায় আসা রোহিঙ্গা উদ্বাস্তুদের ছবি তুলেছিলেন দানিশ।

হলের মধ্যে মন্ত্রমুগ্ধের মতো স্ক্রিনে আটকে সিনেপ্রেমীদের চোখ। ভারতীয় সিনেমাকে নিয়ে দর্শকদের আগ্রহ ফুটে উঠেছে এই ছবিতে।

পূর্বে ভারতের ইলাহাবাদ নামে পরিচিত প্রয়াগরাজের কুম্ভ মেলার সময় তার শিবিরের ভেতরে ভক্তদের জন্য অপেক্ষা করছিলেন এক নাগা সাধু।

মুম্বাইয়ে আরব সাগরের তীরে এক ব্যক্তি গাঙচিলদের খাওয়াচ্ছেন।

উত্তর কোরিয়ার পিয়ংইয়াংয়ের একটি চিড়িয়াখানা ঘুরে দেখার সময় একজন সৈনিকের আইসক্রিম খাওয়ার দৃশ্য। ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

মুম্বাইয়ের রাস্তায় ফুটপাথে হ্যামক টানিয়ে শুয়ে আছে ৩ বছর বয়সী এক পথশিশু

মুম্বাইয়ে একটি ঐতিহ্যবাহী ভারতীয় রেসলিং সেন্টারে কাদামাটিতে কেউ বিশ্রাম নিচ্ছেন, কেউ অনুশীলন করছেন। ৪ মার্চ, ২০১৪

হংকংয়ে সিভিল হিউম্যান রাইটস ফ্রন্ট আয়োজিত মানবাধিকার দিবস মার্চ চলাকালীন গাই ফোকসের মুখোশ পরিহিত একজন বিক্ষোভকারী। ৮ ই ডিসেম্বর, ২০১৮

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে