বিজয়ের মাসের প্রথম প্রহরে স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্রদীপ প্রজ্বালন

বিজয়ের মাসের প্রথম প্রহরে স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্রদীপ প্রজ্বালন

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:২৬ ১ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৬:৩৬ ১ ডিসেম্বর ২০২০

বিজয়ের মাসের প্রথম প্রহরে স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্রদীপ প্রজ্বালন

বিজয়ের মাসের প্রথম প্রহরে স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্রদীপ প্রজ্বালন

মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয়ের মাস ডিসেম্বরের প্রথম প্রহর রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রদীপ প্রজ্বালন করেছে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ। এর মধ্যে দিয়ে মাসব্যাপী কর্মসূচির সূচনা করলো আওয়ামী লীগের সহযোগী এ সংগঠনটি।

রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের শিখা চিরন্তনে এই প্রদীপ প্রজ্বালনের আগে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়। প্রদীপ প্রজ্বালন কর্মসূচিতে অংশ নেন সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী। 

এ সময় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাংলার ঐতিহ্য, ভাস্কর্য বাঁচিয়ে রাখে ইতিহাস। বিএনপি-জামায়াতের মদদপুষ্ট উগ্র সাম্প্রদায়িক মৌলবাদী গোষ্ঠী ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার নামে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে আসছে। উগ্র সাম্প্রদায়িক মৌলবাদী অপশক্তিকে যেখানে পাওয়া যাবে, সেখানে প্রতিরোধ করা হবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন-অগ্রগতিতে বাধা সৃষ্টি করতে বিএনপি-জামায়াত ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টায় লিপ্ত আছে। সারাদেশে স্বেচ্ছাসেবক লীগ যেকোনো অপশক্তিকে রুখে দিতে সদা প্রস্তুত। বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার বাংলাদেশে কোনো সাম্প্রদায়িক অপশক্তির স্থান হবে না, হতে পারে না। স্বাধীন বাংলাদেশে মৌলবাদের মূল উৎপাটন করা হবে।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু বলেন, একাত্তরের পরাজিত অপশক্তি এবং ’৭৫ ও ২১ আগস্টের খুনিচক্র বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। বিএনপি-জামায়াতের মদদপুষ্ট ধর্মব্যবসায়ী ফতোয়াবাজদের রুখে দিতে সারাদেশে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ফুঁসে উঠেছে। ধর্মের নামে অপব্যাখ্যাকারী মৌলবাদী ফতোয়াবাজ কথিত মাওলানা মামুনুল হককে যেখানেই পাওয়া যাবে সেখানেই প্রতিহত করা হবে।

কর্মসূচিতে আরো বক্তব্য রাখেন- সংগঠনের সহ-সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, ম. আব্দুর রাজ্জাক, মজিবুর রহমান স্বপন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা খায়রুল হাসান জুয়েল, নাফিউল করিম নাফা, ওবায়দুল হক খান, রফিকুল ইসলাম বিটু প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ/এইচএন