শান্তিতে বাস করা সবুজের গ্রাম ছিল

শান্তিতে বাস করা সবুজের গ্রাম ছিল

রুমান হাফিজ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:১২ ১২ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৫:১৩ ১২ মার্চ ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

চারদিকে সবুজের বৃক্ষতে ঘেরা ছিল
মাঠ ভরা ফসলের উঁচুময় বেড়া ছিল
আর সাথে স্নেহময়-
বড়দের জেরা ছিল।

ভোরবেলা পাখিদের সুমধুর গান ছিল
ঘোলা ভরা কৃষকের ঘরে কতো ধান ছিল
উঠোনের গাছটাতে-
কুহু কলতান ছিল।

খালবিল,পুকুরেতে কতশত মাছ ছিল
ছোটবড় সব গাছে পাখিদের বাস ছিল
গ্রাম ছাড়া শহরেও-
বহু জমি খাস ছিল।

রোজ ভোরে বাচ্চারা, মক্তবে পাঠ ছিল
খালি গায় আর কারো পরনেতে শার্ট ছিল
বড় কথা সেইখানে-
আদবের পার্ট ছিল।

কাদামাখা পথ ধরে বসানো যে হাট ছিল
কেনাবেচা সব হত,পাশে খেয়া ঘাট ছিল
মাতবরি ছাড়াও তো-
বড়সাব লাট ছিল।

কানামাছি,লাটিম আর হাডুডুডু খেল ছিল
লোক হীনা গুটি কয় ছোট ছোট জেল ছিল
নৌ পথে জাহাজ আর- 
ঝকঝকে রেল ছিল।

গাছে গাছে আম-জাম,আতা লিচু বেল ছিল
ঘরে ঘরে চাষ করা খাঁটি মধু,তেল ছিল
পাখিগুলো দিকে দিকে-   
সুখ ডানা মেলছিল।

একসাথে বসে সব গান,পুথি পাঠ ছিল
সুখ আর শান্তিতে দিনরাত কাটছিল
খাল বিল, পুকুর আর-
ইয়া বড় মাঠ ছিল!

মেজবানি,কুটুম আর দাওয়াতের চল ছিল
গরু গাড়ি,পালকি ও কাপড়ের কল ছিল
ঘরে ঘরে ধান আর-
ঠেকিতেই বল ছিল।

শান্তিতে বাস করা সবুজের গ্রাম ছিল
প্রেয়সীর চিঠি লেখা হলুদের খাম ছিল
সাশ্রয় ছিলো সাথে- 
পয়সারও দাম ছিল।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম