৪৮ ঘণ্টা আগেই রংপুর সিটিতে পশুর বর্জ্য অপসারণ

৪৮ ঘণ্টা আগেই রংপুর সিটিতে পশুর বর্জ্য অপসারণ

রংপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:১৪ ৩ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৪:১৫ ৩ আগস্ট ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ৩৩টি ওয়ার্ড থেকে ৪৮ ঘণ্টার আগেই কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ শেষ হয়েছে। 

নগরবাসীর সহায়তায় ও সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের প্রচেষ্টার বর্জ্য অপসারণ সম্ভব হয়েছে বলে জানালেন মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা‎। 

সোমবার দুপুরে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র মাহমুদুর রহমান টিটু জানান, বর্জ্য অপসারণে আমাদের সময় ছিল ৪৮ ঘণ্টা। কিন্তু আমরা ২৪ ঘণ্টার টার্গেট নিয়ে কাজ করেছি। ঈদের সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রায় ২০০ টন বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। এর জন্য সিটির ১২০টি ট্রলি, রিকশা, ভ্যান ও ২৫টি ট্রাক নিয়ে মাঠে নিরলস কাজ করেছে ১ হাজার ৩৭ জন।

প্যানেল মেয়র বলেন, কোরবানির পশুর বর্জ্য থেকে যাতে দুর্গন্ধ না ছড়ায়, এজন্য নগরীর রাস্তায় রাস্তায় ও অলিগলিসহ পশু জবাই করে রাখা স্থানগুলোতে পর্যাপ্ত ব্লিচিং পাউডার ছিটানো হয়েছে। ঈদের দিনে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে বর্জ্য সংগ্রহ করেছে। এছাড়াও ঈদের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দিনেও বর্জ্য অপসারণে কর্মীরা কাজ করেছে। 

টিটু আরো জানান, কোরবানির পশুর বর্জ্য দ্রুত অপসারণে নগরীর ৩৩টি ওয়ার্ডকে তিনটি জোনে ভাগ করা হয়েছিল। 

সিটি কর্পোরেশনের নির্ধারিত স্থানে অধিকাংশ পশু জবাই হয়নি স্বীকার করে তিনি বলেন, স্বল্প সংখ্যায় হলেও নির্দিষ্ট স্থানে পশু জবাইয়ের যে রীতি চালু হয়েছে, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে নগরবাসী তাতে অভ্যস্ত হয়ে পড়বে বলেও জানান প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর মাহমুদুর রহমান টিটু।

ঈদের দিন দুপুরে নগরীর শাপলা চত্বরে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্যানেল মেয়র মাহমুদুর রহমান টিটু। 

এসময় রসিকের সচিব রাশেদুল হক, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও কাউন্সিলর মাহবুবার রহমান মঞ্জু, কাউন্সিলর সেকেন্দার আলী, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রধান মিজানুর রহামন মিজু উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম