১০ টাকার চাল কালোবাজারে, হাতেনাতে ধরা ডিলার

১০ টাকার চাল কালোবাজারে, হাতেনাতে ধরা ডিলার

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৩১ ১০ এপ্রিল ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুরে ১০ টাকা কেজির চাল কালোবাজারে বিক্রি করে হাতেনাতে ধরা খেলেন আবুল কাশেম নামে এক ডিলার।

শুক্রবার দুপুর উপজেলার চন্ডিপুর ইউপির দক্ষিণ চন্ডিপুর অহিদ ডাক্তারের পোলের গোড়া সংলগ্ন দর্জি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

৩৫ বস্তা চাল কার্ডধারীদের না দিয়ে অন্যত্র বিক্রির অভিযোগে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে লক্ষ্মীপুর জেলা জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআইয়ের) ডিডি মানিক চন্দ্র দে ও রামগঞ্জ উপজেলা এনএসআইয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত ফিল্ড অফিসার রাজিব ভৌমিক এবং রামগঞ্জ উপজেলা খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা (ওসিএলএসডি) মো. ইসমাইল হোসেন ঘটনাস্থলে এসে বিক্রিকৃত চালের বস্তা উদ্ধার করেন। এ সময় প্রশাসনিক কোনো সহযোগিতা না পাওয়ায় ডিলার আবুল কাশেমকে গ্রেফতার না করেই উল্টো উদ্ধার হওয়া চাল তারই গুদামে পাঠিয়ে দেয়া হয়। গুদামে ওই চাল রাখার নির্দেশ দেন খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা।

ডিলার আবুল কাশেম উপজেলার ৫ নম্বর চন্ডিপুর ইউপির দক্ষিণ চন্ডিপুর গ্রামের মেহের আলী পাটোয়ারী বাড়ির আ. হক পাটোয়ারীর ছেলে।

এদিকে ডিলার আবুল কাশেমকে গ্রেফতার না করায় উপজেলাব্যাপী সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

সরেজমিনে ডিলার আবুল কাশেমের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে ডিলার আবুল কাশেম বলেন, কার্ডধারীরা চাল নিতে না আসায় আমি অন্যত্র বিক্রি করে দিয়েছি। তারা না আসলে আমি কি করবো।

রামগঞ্জ উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা বলেন মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, ডিলার আবুল কাশেম নিয়মবর্হিভূত কাজ করায় তার ডিলারশিপ বাতিল করে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে ইউএনও মুনতাসির জাহান জানান, খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা মো. ইসমাইলম হোসেনকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে চাল উদ্ধার করা হয়েছে। কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ