Alexa ১০ম তারাবি: পঠিত আয়াত ও বিষয়সমূহ

১০ম তারাবি: পঠিত আয়াত ও বিষয়সমূহ

মাওলানা ওমর ফারুক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:৫৯ ১৫ মে ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

আজ ১০ম তারাবিতে সূরা ইউসুফের ৭ম রুকু থেকে ১২তম রুকু পর্যন্ত (আয়াত ৫৩-১১১), সূরা রাদ এর ১ম রুকু থেকে ৬ষ্ঠ রুকু পর্যন্ত ও সূরা ইব্রাহীমের ১ম রুকু থেকে ৭ম রুকু পর্যন্ত (আয়াত ১-৫২) পড়া হবে। 

পারা হিসাবে আজ পড়া হবে ১৩তম পাড়া।

সূরা ইউসুফ (৫৩-১১১):
৭ম রুকু থেকে ১১তম রুকু পর্যন্ত (আয়াত ৫৩-১০৪) ইউসুফ (আ.) এর ঘটনার অবশিষ্ট অংশ বিবৃত করা হয়েছে। বর্ণিত হয়েছে, মিসরের বাদশা ইউসুফ (আ.) এর কাছে স্বপ্নের সঠিক ব্যাখ্যা শুনে তাকে জেল থেকে মুক্ত করে দিলেন। মুক্তির আগে ইউসুফ (আ.) সবার সামনে নিজে নির্দোষ হওয়ার প্রমাণ করতে চাইলেন। আজিজে মিসরের স্ত্রী নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করল। ইউসুফ (আ.) নির্দোষ এ কথাও সে অকপটে বলল। জেল থেকে বেরিয়ে ইউসুফ (আ.) মিসরের অর্থ বিভাগের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। সে সময়ে মিসর ও তার আশপাশের এলাকাগুলোয় দুর্ভিক্ষের কারণে ইউসুফ (আ.) এর ভাইয়েরা বিশেষ দান সংগ্রহের জন্য মিসরে আসে। সাক্ষাতের পর ইউসুফ (আ.) ভাইদের জানিয়ে দেন, আমি তোমাদের ভাই ইউসুফ। এরপর ইউসুফ (আ.) এর বাবা-মা’ও মিসরে আসেন এবং এখানেই বসতি স্থাপন করেন। ইউসুফ (আ.) এর শৈশবে দেখা স্বপ্ন সত্যে পরিণত হয়।

১২তম রুকুতে (আয়াত ১০৫-১১১) বলা হয়েছে নবীগণের আগমনের কারণ ও তাদের দায়িত্ব। তাদের জীবন থেকে শিক্ষা গ্রহণ করা।

সূরা রাদ (আয়াত ৪৩):
১ম রুকুতে (আয়াত ১-৭) আলোকপাত করা হয়েছে কোরআনের সত্যতা, আল্লাহর অস্তিত্ব ও একত্ববাদ সম্পর্কে, আসমান-জমিন, চাঁদ-সূর্য, রাত-দিন, পাহাড়-পর্বত, নদী-নালা, লতা-গুল্ম, বৈচিত্র্যময় স্বাদ ও রঙের বিভিন্ন ফলমূলের স্রষ্টা একমাত্র তিনিই এ সম্পর্কে।

২য় রুকুতে (আয়াত ৮-১৮) মানুষের জন্ম, জীবন, মরণ, উপকার ও ক্ষতি একমাত্র তারই হাতে। এরপর কেয়ামতের পুনরুত্থান ও প্রতিদানের আলোচনা করা হয়েছে। ফেরেশতাদের দিয়ে আল্লাহ তায়ালা মানুষকে হেফাজত করেন, আল্লাহ তায়ালা কোনো জাতির অবস্থা ততক্ষণ বদলান না, যতক্ষণ না সে জাতি নিজেদের অবস্থা পরিবর্তন করে। মুসলিম জাতি সম্মান পেতে চাইলে, গুনার পথ পরিহার করে মর্যাদার পথ অবলম্বন করতে হবে। বাতিলের উপমা দেয়া হয়েছে ঢেউয়ের বুদবুদের সঙ্গে, যা বাহ্যত সব জিনিসের ওপর ছেয়ে থাকে। কিন্তু অবশেষে শুকিয়ে বিলুপ্ত হয়ে যায়। আর হক ও সত্যপন্থিদের ওই সোনা-রুপার সঙ্গে উপমা দেয়া হয়েছে, যা ঢেউয়ের সঙ্গে ভেসে যায় না, বরং জমিনেই থেকে যায়। তারপর আগুনে উত্তপ্ত করলে তা একেবারে খাঁটি সোনায় পরিণত হয় এবং খাদ ও ময়লা তা থেকে পৃথক হয়ে যায়।

৩য় রুকু থেকে ৬ষ্ঠ রুকু (আয়াত ১৯-৪৩) পর্যন্ত তাকওয়া অবলম্বনকারী এবং সত্যিকার বুদ্ধিমানদের আটটি গুণের কথা উল্লেখ করা হয়েছে সেগুলো হলো প্রতিশ্রুতি রক্ষা, আত্মীয়তার সম্পর্ক রক্ষা, আপন প্রতিপালকের ভয়, মন্দ হিসাবের ব্যাপারে শঙ্কা, ধৈর্যধারণ, নামাজ কায়েম, প্রকাশ্যে এবং গোপনে দান, মন্দের জবাবে ভালো ও উত্তম চরিত্র প্রদর্শন করা প্রভৃতি।

সূরা ইব্রাহীম (আয়াত ৫২):
১ম ও ২য় রুকুতে (আয়াত ১-১২) বিভিন্ন সম্প্রদায় তাদের নবীদের সঙ্গে কেমন আচরণ করেছে এর কিছু নমুনা তুলে ধরা হয়েছে। অস্বীকারকারী গোষ্ঠী সাধারণত চার ধরনের সন্দেহের কথা বলত এবং বর্তমানেও বলে। সন্দেহগুলোর উল্লেখ করে জবাব দেয়া হয়েছে ‘আল্লাহর অস্তিত্বের ব্যাপারে সন্দেহ’, অথচ একটু চোখ মেলে তাকালেই দেখা যায়, রাব্বুল আলামিনের অস্তিত্বের অসংখ্য প্রমাণ। ‘রাসূল মানুষ হবেন কেন?’ মানুষের জন্য মানুষ রাসূল পাঠানোই তো বেশি যৌক্তিক। ‘বাপ-দাদাদের ধর্ম ছেড়ে নতুন ধর্ম কেন গ্রহণ করব?’ কেউ যদি ভুলপথে থাকে তবু কী তাকে অনুসরণ করা হবে?

৩য় থেকে ৭ম রুকু পর্যন্ত (আয়াত ১৩-৫২) কেয়ামতের দৃশ্যের অবতারণা করা হয়েছে এবং জাহান্নামের ভীষণ ভয়ংকর আজাবের আলোচনা করা হয়েছে। কেয়ামতের ময়দানে নিজ অনুসারীদের থেকে শয়তানের পলায়ন প্রসঙ্গে বলা হয়েছে এবং হক-বাতিলের চমৎকার একটি উপমা পেশ করা হয়েছে। বিশেষভাবে ইব্রাহীম (আ.) এর ওইসব দোয়া উল্লেখ করা হয়েছে, যেগুলো তিনি করেছিলেন বায়তুল্লাহ বিনির্মাণের পর মক্কাবাসী, নিজের সন্তান-সন্ততি ও পরবর্তী বংশধর এবং মানবতার জন্য। দোয়ায় তিনি নিরাপত্তা, রিজিকের ব্যবস্থা, মক্কার প্রতি সবার অন্তরের টান, সালাত কায়েম করা এবং মাগফিরাতের দরখাস্ত করেছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে

Best Electronics
Best Electronics
শিরোনামকুমিল্লার বাগমারায় বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে নারীসহ নিহত ৭ শিরোনামবন্যায় কৃষিখাতে ২শ’ কোটি টাকার বেশি ক্ষতি হবে না: কৃষিমন্ত্রী শিরোনামচামড়ার অস্বাভাবিক দরপতনের তদন্ত চেয়ে করা রিট শুনানিতে হাইকোর্টের দুই বেঞ্চের অপারগতা প্রকাশ শিরোনামচামড়া নিয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সমাধানে বিকেলে সচিবালয়ে বৈঠক শিরোনামডেঙ্গু: গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ১৭০৬ জন: স্বাস্থ্য অধিদফতর শিরোনামডেঙ্গু নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন দুপুরে আদালতে উপস্থাপন শিরোনামডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমছে: সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের পরিচালক শিরোনামইন্দোনেশিয়ায় ফেরিতে আগুন, দুই শিশুসহ নিহত ৭ শিরোনামআফগানিস্তানে বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা, নিহত বেড়ে ৬৩