দূরবীনপ্রথম প্রহর

হাড় ক্ষয়ে দায়ী যেসব খাবার

ফাতিমাতুজ্জোহরাডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
ছবি: সংগৃহীত

শরীরে হাড় নিয়ে অনেক সমস্যা হয়ে থাকে। বিশেষ করে মহিলারা হাড় ক্ষয় রোগে অনেক বেশি ভুগে থাকেন। এ সমস্যা সাধারণ মধ্য বয়স থেকেই শুরু হয়। সেই হাঁটু ব্যথা, কোমড় ব্যাথা, উঠতে পারি না, বসতে পারি না, এ ধরণের সমস্যা লেগেই থাকে। এ ধরণের রোগ অস্ট্রিওকোলেসিস নামে অধিক পরিচিত। এ রোগগুলো বেশ কিছু খাবারের কারণে হতে পারে। এ রকম কয়েকটি খাবার সম্পর্কে জেনে নিন-

অনেকেই অতিরিক্ত মাত্রায় লবণ খেয়ে থাকেন। লবণ অতিরিক্ত মাত্রায় খাওয়ায় হাড় ক্ষয়ের একটি অন্যতম একটি কারণ। লবণ মানেই হলো সোডিয়াম ক্লোরাইড। যেটা দেহে বেশি মাত্রায় প্রবেশ করলে ক্যালসিয়ামকে শোষণ করে নেয়। যার ফলে হাড় ক্ষয় হয়। তাই লবণ অতিরিক্ত খাওয়া হাড় ক্ষয়ের একটা বিশেষ কারণ। শুধু ভাতের সঙ্গে নয়, ফাস্ট ফুড, সালাদ বা তরকারির মধ্যে যেন মাত্রাতিক্ত লবণ না থাকে সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

সফট ড্রিংক বা কোল্ড ড্রিংকস সকলেই খেতে পছন্দ করে। তবে জানেন কি? কোল্ড ড্রিংসের মধ্যে ফসফরিক এসিড থাকে। যা প্রাকৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে দেহ থেকে ক্যালসিয়াম বের করে দেয়। যার ফলে হাড় ক্ষয় হয়। সে কারণেই অতিরিক্ত মাত্রায় কোল্ড ড্রিংকস খাওয়া উচিত নয়।

সকালে ঘুম থেকে উঠেই অনেকে চা বা কফির মগে চুমুক দেন! এক কাপ বা দুইকাপ চা ও কফি খেতেই পারেন। এর থেকে বেশি মাত্রায় চা বা কফি খেলে এর মধ্যে থাকা ক্যাফেইন শরীরে প্রবেশ করে হাড় ক্ষয় করে।

অনেকেই আছেন যারা প্রতিদিন মাংস খেয়ে থাকেন। অতিরিক্ত মাত্রায় মাংস খেলে এর মধ্যে থাকা প্রোটিন শরীরে বেশি পরিমাণে প্রবেশ করে। ফলে ক্যালসিয়াম ঠিকভাবে কাজ করতে পারে না। তাই শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি দেখা দেয়। এর ফলে হাড় ক্ষয় শুরু হয়। যত ভালো খাবারই হোক না কেন পরিমিত মাত্রায় খেতে হবে। তাই এসব খাবার অতিরিক্ত মাত্রায় না খেয়ে একটা পরিমিত মাত্রায় খেলে হাড় ক্ষয় থেকে বাঁচতে পারেন। গ্রিন টিও দিনে তিন কাপের থেকে বেশি খাওয়া উচিত নয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস

daily-bd-hrch_cat_news-11-10