Alexa হাসপাতালের গেট আটকে ফারিয়ার সমাবেশ! 

হাসপাতালের গেট আটকে ফারিয়ার সমাবেশ! 

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:২৬ ২২ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ২০:৪৪ ২২ অক্টোবর ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মূল গেইট আটকে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ ফার্মাসিউটিক্যালস রিপ্রেজেন্টিটিভস অ্যাসোসিয়েশন (ফারিয়া)।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত প্রায় দুই ঘণ্টা তারা এ মানববন্ধন ও সমাবেশ করেন। এ সময় ফারিয়ার সদস্য ছাড়াও বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধিদের প্রায় শতাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মূল গেইট আটকে ফারিয়ার এ মানববন্ধন ও সমাবেশ করায় কমপ্লেক্সে আসা শত শত রোগী ভোগান্তির শিকার হন। পাশাপাশি মানববন্ধন-সমাবেশের কারণে শহীদ ময়েজউদ্দিন সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে ভোগান্তিতে পড়েন ওই সড়কে চলাচলকারী পথচারীরাও।

হাসপাতালে চিকিৎসা-সেবা নিতে আসা কয়েকজন জানান, তারা মানববন্ধন ও সমাবেশ করুক কিন্তু হাসপাতালের গেট বন্ধ করে কেন, উপজেলা পরিষদ চত্বরে গিয়েও করতে পারতেন।  

ফারিয়ার কালীগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম বলেন, হাসপাতালকে ঘিরেই আমাদের চাকরি, তাই হাসপাতাল গেটেই করতে হবে।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. ছাদেকুর রহমান আকন্দ জানান, তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভিতরে মানববন্ধন-সমাবেশ করতে অনুমতি চেয়েছিলেন। আমি তাদের অনুমতি দেইনি। তবে হাসপাতালের গেট বন্ধ করে কর্মসূচি করে থাকলে তারা ঠিক করেননি। আমি বিষয়টি দেখে ব্যবস্থা নিচ্ছি।         

অধিকার আদায়ে আমরা সবাই এক সঙ্গে স্লোগানে ফারিয়ার কালীগঞ্জ উপজেলা শাখা ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের চাকরির সুনির্দিষ্ট নীতিমালাসহ পাঁচ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে তারা হাসপাতাল গেটে মানববন্ধন ও সমাবেশের আয়োজন করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন ফারিয়ার কালীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি আক্তারুজ্জামান বাবুল।

সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন- ফারিয়া কালীগঞ্জ উপজেলার তোফাজ্জল হোসেন, রফিকুল ইসলাম, সাইদুর রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান, ফরিদুল ইসলাম প্রমুখ।

তাদের উল্লেখিত দাবিগুলোর মধ্যে ছিল- ৭ম গ্রেডে বেতন, টিএ-ডিএ বৃদ্ধি, চাকরির নিরাপত্তা-নিশ্চয়তা, ফারিয়াকে সরকার কর্তৃক স্বীকৃতি, সাপ্তাহিক ছুটিসহ সব প্রকার সরকারি ছুটি চাই।      

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম