সেই ‘ফ্লয়েড স্টাইলে’ এবার গলা চেপে ধরল ভারতীয় পুলিশ!

সেই ‘ফ্লয়েড স্টাইলে’ এবার গলা চেপে ধরল ভারতীয় পুলিশ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:৩১ ৬ জুন ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পুলিশের বর্বর নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ঘটনায় বিক্ষোভে উত্তাল গোটা যুক্তরাষ্ট্র। ঘটনার দশম দিনেও অব্যাহত রয়েছে প্রতিবাদ বিক্ষোভ। সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলো এবার ভারতে। রাজস্থানের এক যুবককে গলায় হাঁটু দিয়ে চেপে ধরেন ভারতীয় এক পুলিশ। তবে, এই ঘটনার ভুক্তভোগী প্রাণে বেঁচে গেছেন। ঘটনাটির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাজস্থানের যোধপুরে সোমকরণ নামের এক ব্যক্তি মাস্ক না পড়ে রাস্তার ধারে বসে থাকায় টহল পুলিশের জেরার মুখে পড়েন। দুই পুলিশ সদস্য তার কাছে জানতে চান, কেন মাস্ক পরেননি। তা নিয়েই পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয়। হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। সেই সময়ই এক পুলিশ সদস্য সোমকরণকে মাটিতে শুইয়ে তার গলায় হাঁটু দিয়ে চেপে ধরেন। 

পরিস্থিতি দেখে স্থানীয় মানুষজন এগিয়ে আসেন। তাদের হস্তক্ষেপে পুলিশ সোমকরণকে ছেড়ে দেয়। কিন্তু পুলিশ গ্রেফতার করে নিয়ে যায় সোমকরণকে। পুলিশকে শারীরিক লাঞ্ছনার অভিযোগে মামলা হয়েছে তার বিরুদ্ধে।

জর্জ ফ্লয়েডের মতো এ ঘটনারও পাশ থেকে কেউ একজন পুরো বিষয়টির ভিডিও করেন। পরে তা আপ করেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এরপরই দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ভিডিওটি। তা দেখেই অনেকে এ ঘটনাকে যুক্তরাষ্ট্রের জর্জ ফ্লয়েডের ঘটনার পুনরাবৃত্তি বলে উল্লেখ করছেন।

সোমকরণকে এমন অমানবিকভাবে হাঁটু দিয়ে গলা চেপে ধরা অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থাই নেয়নি দেশটির প্রশাসন। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মাস্ক না পরায় জরিমানা দিতে বলায় পুলিশ সদস্যদের জামাকাপড় ছিঁড়ে ফেলেছেন সোমকরণ। তাই পুলিশকে আক্রমণাত্মক হতে হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মে মিনেসোটার মিনিয়াপোলিসে জর্জ ফ্লয়েড পুলিশের হাতে বন্দী হন। হাতকড়া পরা অবস্থায় ফ্লয়েড়ের ঘাড়ে হাটু দিয়ে মাটির সঙ্গে অনেক্ষন চেপে ধরে রাখেন অফিসার। ফ্লয়েড বারবার বলেন নিঃশ্বাস নিতে পারছি না। তারপরও অফিসার তাকে চেপে রাখেন। এতেই হয়তো তার মৃত্যু হয়েছে এই অভিযোগ তুলে ঐ আফিসারের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ববস্থা নেয়ার দাবিতেই মূলত শুরু হয় প্রতিবাদ বিক্ষোভ। পরে তা বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনে রূপ নেয় এবং যুক্তরাষ্ট্রের ছোট বড় সকল রাজ্যেই তা ছড়িয়ে পড়ে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ