Alexa সুন্দরবনের গহীন অরণ্যে বিজিবি ডিজি

সুন্দরবনের গহীন অরণ্যে বিজিবি ডিজি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৩২ ২২ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৭:৩৩ ২২ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সুন্দরবনের গহীন অরণ্যের জল সীমান্তে অবস্থিত ভাসমান বিওপি পরিদর্শন করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম।

বুধবার বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে বিজিবি’র খুলনা সেক্টরের নীলডুমুর ব্যাটালিয়ন (১৭ বিজিবি), সাতক্ষীরা ব্যাটালিয়ন (৩৩ বিজিবি), রিভারাইন বর্ডার গার্ড কোম্পানীর অধীনস্থ আঠারবেকি ও কাঁচিকাটা ভাসমান বিওপি এবং কৈখালী বিওপি পরিদর্শন করেন তিনি। 

এ সময় খুলনা সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মো. আরশাদুজ্জামান খানসহ বিজিবি’র অন্যান্য কর্মকর্তা ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

বিজিবি মহাপরিচালক নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও দক্ষতা ও সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালনের জন্য 
বিজিবি সদস্যদের অভিনন্দন জানান। একইসঙ্গে তাদের দেশপ্রেম, শৃঙ্খলা, সততা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সঙ্গে সীমান্ত রক্ষার পবিত্র দায়িত্ব পালনের জন্য বিভিন্ন নির্দেশনা দেন। 

বিজিবি’র জনসংযোগ দফতর সূত্রে জানা যায়, সীমান্তের এ ভাসমান বিওপিসমূহে যাতায়াতের কোনো সড়ক যোগাযোগ না থাকায় সৈনিকদের খাবার পানি, খাদ্য সামগ্রী, রেশন ও প্রয়োজনীয় রসদ প্রয়োজন অনুযায়ী জলযানের মাধ্যমে পাঠাতে হয়। 

ভবিষ্যতে এ অঞ্চলে আরো দু’টি ভাসমান বিওপি স্থাপন করা হবে। মহাপরিচালকের এ পরিদর্শনের মাধ্যমে প্রস্তাবনাধীন দু’টি নতুন ভাসমান বিওপি স্থাপনের জন্য স্থান নির্বাচনের কাজ সম্পন্ন হয়।

বর্তমান সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় বিজিবি’র এয়ার উইং সৃজিত হয়েছে এবং দুটি হেলিকপ্টার কেনা হয়েছে। 

এ হেলিকপ্টারের মাধ্যমে দুর্গম বিওপিগুলোকে বিভিন্নভাবে সহায়তা প্রদান করা আরো সহজ হবে। তাছাড়া জলসীমান্তের সার্বভৌমত্ব রক্ষা এবং সুন্দরবন ও সেন্টমার্টিনসহ বাংলাদেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের আগ্রাসন রোধে নজরদারী বৃদ্ধি, নিজস্ব জল সীমানায় আধিপত্য বিস্তার ও অপারেশনাল সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য বিজিবির সাংগাঠনিক কাঠামোতে ৪টি হাইস্পিড ইঞ্জিন বোট, ২টি ফাস্ট ক্রাফট ও ১টি লজিস্টিক শিপ ক্রয় প্রক্রিয়াধীন আছে। 

এতে বিওপিসমূহের অপারেশনাল দক্ষতা ও প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনা বর্তমানের চেয়ে অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে। 

দেশের মোট ৪ হাজার ৪২৭ কিলোমিটার বিস্তৃত সীমান্ত এলাকার মধ্যে ২৪৩ কিলোমিটার জলসীমা রয়েছে। যার মধ্যে ১৮০ কিলোমিটার জলসীমা বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে অবস্থিত। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এসসি/এসআই