Alexa সুনামগঞ্জ কিচেন মার্কেট সংলগ্ন সড়কে ১২ মাস কাদা!

সুনামগঞ্জ কিচেন মার্কেট সংলগ্ন সড়কে ১২ মাস কাদা!

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৫২ ১৮ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৯:৫৭ ১৮ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সুনামগঞ্জ পৌর শহরের কিচেন মার্কেট সংলগ্ন সড়কে প্রতিদিনই জমে থাকে আবর্জনা ও কাদা পানি।  ফুটপাত দিয়েও হাঁটার কোনো উপায় নেই। ফুটপাতগুলো থাকে দোকানিদের দখলে। এ ভোগান্তি থেকে কোনো ভাবেই মুক্তি মিলছে না ক্রেতা ও পথচারীদের। 

ব্যবসায়ী ও ক্রেতারা বার বার সমস্যা সমাধানে পৌর কর্তৃপক্ষকে দ্রুত পদক্ষেপ নেবার দাবি জানিয়ে আসলেও কোনো কাজই হচ্ছে না। ফলে মার্কেটের সামনে, পেছনে এবং ভেতরে ময়লা আবর্জনা ও সড়কে কাদা থাকে ১২ মাস। 

জানা যায়, কিচেন মার্কেটের সড়কের ফুটপাতে সবজি দোকান ও পান-সিগারেট, বিক্রেতারা কেউ বেঞ্চ বা গাড়ি বসিয়ে আবার কেউ দোকানের মালামাল ফুটপাতের ওপর রেখে চলাচলের সড়ক দখল করে রেখেছেন। 

এছাড়াও কিচেন মার্কেটের মাছ ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন ট্রাকে করে মাছ আনেন এবং ওই মাছের নোংরা পানি কিচেন মার্কেটের সামনে এবং ভেতরে ফেলা হয়। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় পানি জমে থাকে সড়কে। 

স্থানীয় বাসিন্দা ও সচেতন মহল জানান, বর্জ্য ফেলার পরিবেশ বান্ধব কোনো পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে না এই মার্কেটে। সারা বছর কাদা মাখা পথে নোংরা দুর্গন্ধময় পরিবেশের মধ্য দিয়ে চলাচল করতে হয়।  

সবজি ব্যবসায়ী জাহিদ মিয়া জানান, প্রতিদিন ট্রাকে করে মাছ আনা হয় এবং মাছের পানি ফেলা হয় মার্কেটের সামনে। পানি যখন জায়গা মতো যেতে পারে না তখন ধুলাবালি ও আবর্জনা জমে কাদায় পরিণত হয়। এতে করে এ মাকের্টের অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছে।   

ক্রেতা আশরাফুল ইসলাম সুমন, নাসরিন আক্তার বলেন, মার্কেটের ভেতর যেতে ইচ্ছে হয় না। নোংরা পানি এবং কাদামাটির জন্য হাঁটা যায় না। কিচেন মার্কেটে নজরদারী না থাকায় সবজি, মাছ ক্রয় করতে গেলে নোংরা পানি এবং কাদায় কাপড় নষ্ট হয়ে যায়। 

সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত জানান, খুব শিগগির পৌর কিচেন মার্কেটের সব সমস্যা সমাধান করা হবে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হবে। পৌর কিচেন মার্কেটকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন বলেও তিনি জানান।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে